15 Jun 2021, 3:12 AM (GMT)

Coronavirus Stats

29,617,058 Total Cases
377,061 Death Cases
28,345,261 Recovered Cases
খবরদক্ষিণ ২4 পরগণা

স্ত্রীকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

প্রদীপকুমার সিংহ, বারুইপুর: পেশায় গাড়িচালক। অত্যধিক মদ খেয়ে প্রায়ই বাড়িতে অশান্তি করত বলে অভিযোগ। শেষে স্ত্রীকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বারুইপুর থানার অন্তর্গত কুমোরহাট সরদার পাড়ায়। মৃতার নাম টুলা সরদার(৩২)।

পারিবারিক সূত্রে খবর, টুলার বাপের বাড়ি বারুইপুরের মাদারাট বিশ্বাসপাড়ায়। বারো বছর আগে বারুইপুর থানার অন্তর্গত কুমোরহাট সরদার পাড়ার বাসিন্দা বাপি সরদারের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। টুলা সর্দারের একটি পুত্রসন্তান আছে। নাম অর্ক সরদার(৯)। অর্ক ক্লাস থ্রিতে পড়ে কুমোর হাট আনন্দময়ী পাঠশালা স্কুলে। অভিযোগ, অর্কর বাবা বাপি সরদার প্রতিদিন মদ খেয়ে বাড়ি আসত। এই নিয়ে বাড়িতে অশান্তি লেগেই থাকত। স্ত্রী এ নিয়ে প্রতিবাদ করতেন। টুলা সরদারের ছেলে অর্ক সরদার জানায়, সোমবার রাতে বাবা মদ খেয়ে বাড়িতে ঢুকে রাতের খাবার খেয়ে নেয়। পরে লাইলনের দড়ি বের করে মায়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি করে। তারপর মায়ের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। শেষে ওই দড়ি দিয়ে মায়ের গলায় জড়িয়ে টানতে টানতে উঠোনে নিয়ে যায়। দুই হাত দিয়ে দড়ি ধরে টান মারে। সেখানেই মায়ের মৃত্যু হয়। মায়ের দেহটা নিয়ে গাছে ঝুলিয়ে দেয়।

যাতে সবাই মনে করে, মা আত্মহত্যা করেছে।এই খবর রাতেই পাড়ায় ছড়িয়ে পড়ে। শেষে পাড়ার কিছু মানুষ টুলার দেহটি বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। চিকিৎসক তাঁকে দেখে মৃত ঘোষণা করেন। পরে বারুইপুর থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ টুলার দেহটি নিয়ে ময়নাতদন্তে পাঠায়।টুলার বাপের বাড়ি সূত্রে খবর, একটি ছেলে মঙ্গলবার ভোরে সাইকেল করে এসে এই ঘটনার খবর দিয়ে চলে যায়। ছেলেটাকে বাড়ির কেউ চিনতে পারেননি। সঙ্গে সঙ্গে টুলার মা-বাবা বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে এসে মেয়েকে মৃত অবস্থায় দেখেন। কান্নায় ভেঙে পড়েন তাঁরা। বারুইপুর থানায় তাঁরা অভিযোগ দায়ের করেন টুলার স্বামী বাপি সরদারের বিরুদ্ধে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button