23 Jun 2021, 2:35 AM (GMT)

Coronavirus Stats

30,028,709 Total Cases
390,691 Death Cases
28,994,855 Recovered Cases

খবর

  • তৃতীয় ঢেউতে আক্রান্ত হতে পারে শিশুরা,শহরে শুরু হচ্ছে শিশুদের সেফ হোম

    স্টাফ রিপোর্টারঃ আর কয়েক সপ্তাহ পরেই করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে বাংলায়। তবে এবার সবথেকে উদ্বেগ ছড়াচ্ছে শিশুদের নিয়ে। স্বাস্থ্য় বিশেষজ্ঞদের দাবি করোনার তৃতীয় ঢেউতে আক্রান্ত হতে পারে ছোট্ট শিশুরা। তাদের রক্ষা করতে এবার নানা পরিকল্পনা নিচ্ছে স্বাস্থ্য় দফতর।

    এতদিন বড়দের জন্য চালু ছিল সেফ হোম। এবার করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের কথা মাথায় রেখে পাইকপাড়ার হরেকৃষ্ণ শেঠ লেনে আরজিকর লেডিজ হস্টেলের ভেতর তৈরি রাখা হচ্ছে ৬০ শয্যার শিশুদের জন্য সেফ হোম। শিশুদের পাশাপাশি এখানে মায়েরাও থাকতে পারবেন। পর্যাপ্ত শিশু চিকিৎসক,নার্সদেরও রাখা হবে এখানে। শিশুদের চিকিৎসায় ও যত্নে যাতে কোনও ত্রুটি না হয় সেব্যাপারে বিশেষ যত্নবান স্বাস্থ্য দফতর। তাদের জন্য পর্যাপ্ত অক্সিজেনেরও ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এদিকে ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেল্থ সবরকমভাবে সহযোগিতা করছে কলকাতা পুরসভাকে। এই সেফ হোমে ৬০টি শয্যা নিয়ে তৈরি হচ্ছে এই সেফ হোম। শিশুদের চিকিৎসা যথাযথ করার জন্য চিকিৎসকদের সবরকম প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবে ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেলথ।

    কলকাতা পুরসভা ও স্বাস্থ্য দফতর গোটা বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। করোনার তৃতীয় ঢেউ যাতে কোনওভাবেই একজন শিশুকেও কেড়ে নিতে না পারে তার জন্য সবরকম পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। এব্যাপারে পুর প্রশাসক ফিরহাদ হাকিমও বিশেষ নির্দেশ দিয়েছেন।

  • পেট্রল-ডিজেলের করের টাকায় করোনায় মৃত পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি রাহুলের

    সংবাদ সংস্থা : ‘এটা কোনও উপহার নয়। ক্ষতিপুরণ হল করোনায় মৃতদের পরিবারগুলির প্রাপ্য অধিকার।’ করোনায় মৃতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া নিয়ে কেন্দ্রের অবস্থানের তীব্র সমালোচনা করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তাঁর দাবি, কেন্দ্র পেট্রল-ডিজেল থেকে চার লক্ষ কোটি টাকা কর পাচ্ছে।

    তাহলে করোনায় মৃতদের ক্ষতিপূরণের জন্য আলাদা তহবিল হবে না কেন? প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতির প্রশ্ন, সরকার পেট্রল-ডিজেল থেকে যে ৪ লক্ষ কোটি টাকা কর তুলেছে, সেটা যাদের পরিবারের মানুষ মারা গেছেন, তাঁদের পকেট থেকেও গিয়েছে। রোজ সাধারণ মানুষের পকেট থেকে টাকা নেওয়া হচ্ছে। তাহলে কেন ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে না? মঙ্গলবার এক সাংবাদিক বৈঠকে করোনার ‘মিস-ম্যানেজমেন্ট’ নিয়ে একটি শ্বেতপত্র প্রকাশ করেন কংগ্রেস নেতা। বক্তব্য, করোনা শুধু যে একটি জৈবিক রোগ, তা নয়। এর প্রভাব অর্থনৈতিক-সামাজিক সব রকম।

    সরকারের উচিত বিরোধীদের কথা শোনা এবং করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের প্রস্তুতি নেওয়া। প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি বলছেন, কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ যদি খারাপ হয়ে থাকে, তাহলে করোনার তৃতীয় ঢেউ ভয়াবহ। আর সেই ভয়াবহ পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে সরকারকে সাহায্য করার লক্ষ্যেই এই দেড়শো পাতার শ্বেতপত্র প্রকাশ করেছে কংগ্রেস।

  • ‘পশ্চিমবঙ্গ ভাগ হবে না’, সাফ জানালেন দিলীপ ঘোষ, দিলেন নেতাদের কড়া বার্তা

    স্টাফ রিপোর্টারঃ ‘বঙ্গভঙ্গে’র দাবি উঠেছে বিজেপির অন্দরে। কেউ উত্তরবঙ্গকে স্বাধীন রাজ্য করার দাবি জানিয়েছেন তো কউ আবার ‘রাঢ়বঙ্গ’কে পৃথক রাজ্য করার কথা বলছেন। এ ধরনের দাবি ঘিরে বিতর্ক দানা বেঁধেছে। বিজেপি বাংলাকে ভাঙতে চাইছে বলে প্রচারও শুরু হয়ে গিয়েছে।

    এর মাঝেই সাংবাদিক বৈঠক করে ‘পার্টিলাইন’ স্পষ্ট করে দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দিলীপ ঘোষ সাফ জানিয়ে দিলেন, “আলাদা রাজ্যের মত একান্ত ব্যক্তিগত। পশ্চিমবঙ্গ ভাগ হবে না, এটা দলের মত।” একইসঙ্গে পৃথক রাজ্যের দাবি জানানো নেতাদেরও কড়া বার্তা দিলেন দিলীপ। বললেন, “পার্টিতে থাকতে হলে দলের মত মেনে থাকতে হবে। আর পার্টিলাইন একটাই, পশ্চিমবঙ্গ ভাগ হবে না।

    ” একইসঙ্গে তাঁর খোঁচা, “যাঁরা এ দাবি জানাচ্ছেন তাঁরা বিভিন্ন দল থেকে বিজেপিতে এসেছে। বিজেপি এক রাজ্যের পক্ষেই সওয়াল করে।” দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

  • ছত্তিশগড়ের একটি গ্রাম থেকে চুরি গেল ৮০০ কেজি গোবর

    সংবাদ সংস্থা : কমবেশি প্রত্যেকদিনই অদ্ভুত নানান সব চুরির ঘটনা সামনে আসে। সাধারণত মূল্যবান কোনও জিনিসের প্রতিই নজর থাকে চোর-ডাকাতদের। কিন্তু কখনও গোবর চুরির ঘটনা শুনেছেন? শুনতে অবাক লাগলেও ছত্তিশগড়ের একটি গ্রাম থেকে সম্প্রতি চুরি গিয়েছে ৮০০ কেজি গোবর।

    যার আনুমানিক দাম প্রায় ১৬০০ টাকা। ইতিমধ্যে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। চোরদের পাকড়াও করতে শুরু হয়েছে তদন্তও।সংবাদসংস্থা পিটিআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত ৮ জুন মধ্যরাতে ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের কোরবা জেলার ধুরেনা গ্রামে। দিপকা থানার পুলিশ আধিকারিক হরিশ তান্ডেকর জানিয়েছেন, ১৫ জুন গৌথান সমিতির গ্রামের প্রধান কামহান সিং কানওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    তবে রবিবার বিষয়টি সামনে এসেছে। পুলিশ আধিকারিকদের বক্তব্য, বাজারে ওই ৮০০ কেজি গোরবের দাম মোটামুটি ১,৬০০ টাকার মতো পড়বে। কিন্তু কে বা কারা চুরি গোবর করেছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেইসঙ্গে কী কারণে গোবর চুরি করা হয়েছে, তা নিয়েও ধন্দে আছে পুলিশ।

  • কোভিডের তৃতীয় ঢেউয়ের মোকাবিলার দফায় দফায় বৈঠক কুলপি ব্লক প্রশাসনের

    সানওয়ার হোসেন, কুলপি: মঙ্গলবার কোভিডের তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলার বিশেষ বৈঠক করলেন কুলপি ব্লক প্রশাসন। এদিন ক্লাব, এনজিও, ইমাম-মোয়াজ্জেম ও বাজার কমিটিকে নিয়ে বিশেষ আলোচনা হয় দফায় দফায়।

    বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কুলপি ব্লক অধিকারী দেবর্ষি মুখোপাধ্যায়, ঢোলাহাট ও কুলপি পুলিশ প্রশাসন, বিধায়ক যোগরঞ্জন হালদার, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ও সহকারী সভাপতি প্রমুখ। সকলকে কোভিড পরিস্থিতি কঠোর ভাবে মেনে চলার আবেদন জানানো হয়। প্রয়োজনে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা নেওয়ার পরামর্শ দিলেন ব্লক আধিকারিক।

  • মালবাজারে হাতি পিছে মারল এক ব্যক্তিকে, ভাঙলো পাঁচটি বাড়ি

    স্টাফ রিপোর্টার : গভীররাতে গ্রামে হাতির তাণ্ডবে ভাঙল বাড়ি। সকালে হাতির আক্রমণে মৃত্যু হল এক ব্যাক্তির।এই ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি জেলার মালবাজারের গাজলডোবার সাত নম্বর কলোনি এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় মালবাজার থানার পুলিশ। যান তারঘেরা বন দফতরের আধিকারিকরাও।

    স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার গভীররাতে হাতি তারঘেরা জঙ্গল থেকে বেরিয়ে ৭ নম্বর কলোনি পাড়ায় তাণ্ডব চালায় রাতভর। পাঁচটি কাঁচা বাড়ি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়। হরি ছেত্রী (৩৬) নামে ওই এলাকার এক বাসিন্দাকে সকালে পিষে হত্যা করে দাঁতালটি।

    এ ব্যাপারে তারঘেরা বন দফতরের রেঞ্জার শুভজিৎ মৈত্র বলেন, ‘‘বৈকন্ঠপুর জঙ্গল থেকে হাতিটি বার হয়েছিল।’’ হরির দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে মালবাজার পুলিশ।

  • অতলান্তিক মহাসাগরে ১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটাল আমেরিকা

    সংবাদ সংস্থা : যদি যুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় তাহলে তা মোকাবিলা করতে কি নৌবাহিনী প্রস্তুত? সম্প্রতি এই শক্তিই পরীক্ষা করে দেখল আমেরিকা।অতলান্তিক মহাসাগরে অতলে ১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটিয়ে সেই মহড়াই সম্পূর্ণ করল আমেরিকার নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ জেরাল্ড আর ফোর্ড(সিভিএন ৭৮)।

    এক বিবৃতি জারি করে আমেরিকার নৌবাহিনী জানিয়েছে, পূর্ব উপকূলে এই শক্তি পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে সামুদ্রিক জীবন এবং পরিবেশের কথা মাথায় রেখে সব সুরক্ষা নিয়েই এই শক্তি পরীক্ষা করা হয়েছে।১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটলে তার তীব্রতা কতটা ভয়ানক হতে পারে, সেই দৃশ্যই ধরা পড়েছে আমেরিকার নৌবাহিনীর ক্যামেরায়। যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি হলে এই বোমা শত্রুপক্ষের শিবিরে কতটা অভিঘাত আনতে পারে, এই দৃশ্য থেকেই তা আন্দাজ করে নিতে পারবেন যে কেউ। এর আগে এই ধরনের মহড়া চালানো হয়েছিল ২০০৮ সালে।

  • সুপ্রিম কোর্টে নারদ মামলার শুনানির বেঞ্চ থেকে সরে গেলেন বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসু

    বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর এবার বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসু। সুপ্রিম কোর্টে নারদ মামলার শুনানি থেকে নিজেক সরিয়ে নিলেন এই বিচারপতি। মঙ্গলবারই নারদ সংক্রান্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দায়ের করা মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল শীর্ষ আদালতের দুই বিচারপতি – হেমন্ত গুপ্তা ও অনিরুদ্ধ বসুর এজলাসে। কিন্তু দিনের শুরুতেই মামলা শুনানি হওয়ার ঠিক আগেই তা শুনতে গররাজি হন বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসু।

    এর আগে রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলার শুনানি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসুও সেই পথেই হাঁটলেন।দিন কয়েক আগে রাজ্য়ে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে দায়ের হওয়া মামলার শুনানিতেও এমনই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। এই মামলার শুনানির জন্য তৈরি হওয়া ডিভিশন বেঞ্চের অন্যতম বিচারপতি ছিলেন ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু শুনানির সময় তিনি জানান যে, তাঁর অনুপস্থিতিতেই যেন তা শোনা হয়। অর্থাৎ শুনানি থেকে অব্যাহতি চান তিনি। এবার নারদ স্টিং অপারেশনের মতোস্পর্শকাতর, গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিতে চাইলেন আরেক বাঙালি বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসু। ফলে সুপ্রিম কোর্টে আবেদনের শুনানি নিয়ে নতুন করে জটিলতা তৈরি হয়েছে। আবেদনটি আপাতত সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানার কাছে পাঠানো হবে। তারপর তিনি ঠিক করবেন কোন বেঞ্চে মামলাটি পাঠানো হবে।

    এদিকে মামলা সুপ্রিমকোর্টে যাওয়া হাইকোর্টে এই মামলার পিছিয়ে দিলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল। হাইকোর্টে এই মামলার পরবর্তী শুনানি বুধবার সকাল ১১টায়। প্রসঙ্গত, গত ১৭ মে নারদ মামলায় সিবিআই রাজ্যের ৪ হেভিওয়েট নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম ,মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে। কলকাতা হাইকোর্টে দুটি বিষয়ে নিয়ে আবেদন জানিয়েছিল সিবিআই। একটি হল চার হেভিওয়েট নেতার জামিন সংক্রান্ত। এবং অপরটি হল, নারদ মামলা এ রাজ্য থেকে সরিয়ে অন্য রাজ্যে নিয়ে গিয়ে বিচার প্রক্রিয়া চালানো। বর্তমানে দ্বিতীয় আবেদনের প্রেক্ষিতে শুনানি চলছে হাইকোর্টে।

  • এই প্রথম স্পেনে অনুষ্ঠিত হবে একদিনের ক্রিকেট সিরিজ, বড় ঘোষণা আইসিসির

    সংবাদ সংস্থা : কোভিড মহামারী স্পেনকে করে দিয়েছে দারুণ একটা সুযোগ। নেদারল্যান্ডসের পর ইউরোপের দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ছেলেদের ওয়ানডে ম্যাচ আয়োজন করতে চলেছে স্পেন। আইসিসি রামোস, ইনিয়েস্তা, জাভিদের দেশে এবার ক্রিকেটের আসর বসাতে চলেছে। লা লিগার দেশে ক্রিকেটের আসর দেখার জন্য গোটা বিশ্ব অপেক্ষা করছে।বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা আইসিসি সোমবার নিশ্চিত করেছে, তিনটি ইভেন্ট আয়োজন করা হবে স্পেনে।

    যেখানে বিশ্বকাপ লিগ-২ এর স্কটল্যান্ড, নামিবিয়া ও নেপালের ত্রিদেশীয় একদিনের সিরিজও রয়েছে। সিরিজের ছটি ম্যাচ আয়োজন করা হবে স্পেনের আলমেরিয়ার ডেজার্ট স্প্রিং গ্রাউন্ডে। আগামী ২০ জুলাই থেকে শুরু হবে ক্রিকেটেকর এই টুর্নামেন্ট। সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলা হবে ৩০ জুলাই।ইউরোপিয়ান নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব হবে আগামী ২৬শে অগাস্ট থেকে ৩০ অগাস্ট পর্যন্ত। এরপর ইউরোপিয়ান পুরুষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব হবে ১৯ থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। দুটি আসরই বসবে স্পেনের লা মাঙ্গায়।

    মূলত, যুক্তরাষ্ট্র কোভিড-১৯ এর বিধিনিষেধের কারণে স্কটল্যান্ড থেকে সরিয়ে স্পেনে এই ইভেন্ট তিনটি আনছে আইসিসি। স্পেন ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী জন হাওডেন জানান, আইসিসির এই তিনটি ইভেন্ট আয়োজন করতে পেরে তারা বেশ উৎফুল্ল তারা। তারা সাফল্যের সঙ্গে এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে পারবে বলে বিশ্বাস করেন স্পেন ক্রিকেটের প্রধান।

  • বৃষ্টিতে গোচরণ থেকে মথুরাপুর পর্যন্ত কুলপি রোড মরণফাঁদ, ঘটছে দুর্ঘটনা, নির্বিকার প্রশাসন

    প্রদীপকুমার সিংহ, বারুইপুর: একদিনের বৃষ্টিতে রাস্তা আর রাস্তা নেই। পিচের আস্তরণ উঠে বেরিয়ে পড়েছে রাস্তার কঙ্কাল। বড় বড় খানাখন্দে ভর্তি। জল জমে হয়েছে মরণফাঁদ। নিত্য ঘটছে দুর্ঘটনা। বর্ষার শুরুতেই এমনই চিত্র গোচরণ থেকে মথুরাপুর পর্যন্ত কুলপি রোডের। অভিযোগ, রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু হলেও মাঝপথে বন্ধ হয়ে যায়। আর সব জেনে-দেখেও প্রশাসন নির্বিকার। কবে রাস্তা সংস্কার হবে, তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ মানুষ।

    এই নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত পূর্ত দপ্তরের অতিরিক্ত বাস্তুকাররা। যদিও জয়নগরের বিধায়ক বিশ্বনাথ দাস বললেন, রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু হয়েছিল। ভোটের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। এখন বর্ষা এসে যাওয়ায় কাজ শুরু করতে সমস্যা হচ্ছে। কুলপি রোডের বাংলার মোড় পেরিয়ে দক্ষিণ বারাসতে ঢোকার মুখেই নজর পড়বে বেহাল রাস্তা। এরপর বহুড়ু, জয়নগর, দক্ষিণ বিষ্ণুপুর যত এগোনো যাবে, কঙ্কালসার দশা প্রকট হবে। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন কয়েকশো গাড়ি চলাচল করে। খোদ বিধায়কের বাড়ি দক্ষিণ বারাসতে বৃষ্টি হলেই রাস্তায় বড় বড় গর্তে জল জমে ঢেউ খেলে। একে এবড়ো-খেবড়ো রাস্তা, তার উপর যত্রতত্র পড়ে রয়েছে স্টোনচিপ। এর জেরে সাধারণ মানুষজন ক্ষুব্ধ। ভুক্তভোগী বাসিন্দাদের অভিযোগ, রাস্তা দিয়ে কোনও গাড়ি করে গেলে কান্না পায়। গাড়িতে উঠে ইষ্টনাম জপ করতে হয়।

    রাস্তা এতই বেহাল যে জল জমে থাকলে খানা-খন্দ বোঝা যায় না। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের আন্দোলনের চাপে গোচরণ থেকে দক্ষিণ বারাসত পর্যন্ত কিছু এলাকায় নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে কাজ শুরু হয়েছিল। এরপর ভোট কড়া নাড়তেই তা বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু ভোট মিটতেই নেতাদের রাস্তা মেরামতের প্রতিশ্রুতি উধাও। বাসিন্দাদের আশঙ্কা, ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হলে আরও শোচনীয় অবস্থা হবে। অনেকেই বললেন, এই রাস্তা দিয়েই প্রতিদিন বিধায়ক থেকে শুরু প্রশাসনের লোকজন চলাফেরা করেন। তাঁরা দেখে-জেনেও নীরব রয়েছেন।

    রাস্তার অবস্থা নিয়ে গাড়িচালকরাও ক্ষুব্ধ। তাঁরা বলেন, গর্তে পড়ে প্রতিদিন গাড়ি উল্টে যাচ্ছে। এখন গাড়ি চালানো বিপজ্জনক।মানুষ নরক যন্ত্রণায় ভোগে। প্রতি বছর রাস্তা সারাই হয়। কিন্তু বর্ষার আসার আগে দু’একদিনের বৃষ্টিতে রাস্তার হাল খুব খারাপ হয়।

Back to top button

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home2/biswasam/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757