25 Sep 2021, 6:25 AM (GMT)

Coronavirus Stats

33,624,419 Total Cases
446,690 Death Cases
32,876,319 Recovered Cases

Kolkata

  • আইএসএসে পঞ্চম ও দশম স্থানে কলকাতার দুই বাঙালি

    স্টাফ রিপোর্টার : সম্প্রতি প্রকাশিত ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল সার্ভিস (আইএসএস) পরীক্ষার ফলাফলে নজরকাড়া সাফল্য দুই বঙ্গসন্তানের। মেধা-তালিকায় সারা দেশের মধ্যে পঞ্চম স্থানে রয়েছেন প্রীতম সেন, দশম স্থানে সুতপা ঘোষ। তাঁরা দু’জনেই কলকাতার বাসিন্দা।

    প্রথম ৫০ জনের তালিকায় নাম রয়েছে আরও তিন বাঙালির।২০২০ সালে আইএসএসের লিখিত পরীক্ষা ও ইন্টারভিউয়ের ফলাফলের ভিত্তিতে সম্প্রতি কৃতীদের তালিকা প্রকাশ করেছে ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশন (ইউপিএসসি)। প্রীতম ও সুতপার পাশাপাশি ২৫, ৪১ এবং ৪২ স্থানে আছেন যথাক্রমে আদিত্য মণ্ডল, অঙ্কিতা মণ্ডল ও অমিত সাহা। এই তিন জনও পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা।বাঁশদ্রোণীর বাসিন্দা প্রীতম ২০১৬ সালে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ করেছেন।

    “একটি কলেজে পড়াতে পড়াতেই পরীক্ষার প্রস্তুতি চালাচ্ছিলাম। পড়াশোনার সঙ্গে যুক্ত থাকায় সুবিধাও হয়েছে। পরিবার ও শিক্ষকদের সাহায্য পেয়েছি সব সময়েই,” বলেন প্রীতম সুতপার বাড়ি সল্টলেকে। ২০১৫ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ করেন। তাঁর কথায়, “কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে যা পড়েছি, সেগুলোই সব চেয়ে বেশি কাজে লেগেছে।

    ” তবে চাকরি করতে করতে পরীক্ষার প্রস্তুতি চালাচ্ছিলেন বলে বেশ কিছুটা সময় লেগেছে বলে জানান তিনি। তাঁদের দু’জনেরই মত, এই পরীক্ষা কঠিন। প্রথম বারেই সাফল্য নাও আসতে পারে। তবে ধৈর্য ধরে চেষ্টা করলে সুফল মিলবেই।

  • ভারী বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতা

    স্টাফ রিপোর্টারঃ আবারও নিম্নচাপের জেরে কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলায় শুরু হয়েছে বৃষ্টি৷ বুধবার সকাল থেকে কখনও ভারী, কখনও হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি অবিরাম হয়েছে৷ আর তার জেরে বেড়েছে মহানগরের জল-যন্ত্রণা৷ টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে শহরের বহু রাস্তা।

    কার্যত নদীর রূপ নিয়েছে শহরের রাজপথ।উত্তর থেকে দক্ষিণ কলকাতার কোনও অংশই কার্যত জল জমার হাত থেকেই রেহাই পায়নি৷ উত্তর কলকাতায় সুকিয়া স্ট্রিট, মুক্তারামবাবু স্ট্রিট, আমহার্স্ট স্ট্রিট, ঠনঠনিয়া, কলেজ স্ট্রিট, সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, এম জি রোড, উল্টোডাঙ্গা, পাতিপুকুর সর্বত্র জল জমে রয়েছে৷ অন্যদিকে দক্ষিণ কলকাতার পাক সার্কাস, কালীঘাট, বালিগঞ্জ স্টেশন সংলগ্ন এলাকাও এই মুহূর্তে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। ফলে সমস্যায় পড়েছেন বহু মানুষ৷

    গাড়ি চলাচলের গতি কমে গিয়েছে৷ যাঁরা সাইকেল বা হেঁটে যাতায়াত করেন, তাঁরা চরম সমস্যায় পড়েছেন৷ যদিও পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছে কলকাতা পৌরনিগম৷ তারা জানিয়েছে, গঙ্গায় জোয়ার থাকায় লকগেট গুলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

    তাই জল জমার এই পরিস্থিতি আরও বেশ কিছুক্ষণ স্থায়ী হবে৷ ভাঁটার সময় এগিয়ে এলেই লক গেটগুলি খুলে দেওয়া হবে। তখন ধীরে ধীরে জল নামতে শুরু করবে৷

  • নামছে না জল, ড্রেনে ডুবুরি নামিয়ে উদ্ধার বালির বস্তা, ইট, লেপ তোষক

    স্টাফ রিপোর্টারঃ কলকাতা পুরসভার ড্রেনে ডুবুরি নামিয়ে রবিবার উদ্ধার হল বালির বস্তা, ইঁট, লেপ তোষকের মতো বস্তু। কয়েক ঘন্টা টানা বৃষ্টি হলেই কলকাতা পুরসভার বিস্তীর্ণ এলাকা চলে যায় জলের তলায়। কোথাও কোথাও জল তাড়াতাড়ি নেমে গেলেও বহু জায়গায় নাগরিকদের জল যন্ত্রণা ভোগ করতে হয় টানা কয়েক দিন।

    সম্প্রতি পুরসভার বোরো ১৫ এর বিস্তীর্ণ এলাকায় একটু বৃষ্টিতে জল জমে যাচ্ছিল এবং সেই জল জমে থাকছিল দীর্ঘ সময় ধরে। কিন্তু পুরসভার হিসেব বলছে ওইসব এলাকায় অবস্থা এমন হওয়ার কথা নয়। নিকাশি ব্যবস্থা রয়েছে তাতে ভারী বৃষ্টিপাত হলে জল জমতে পারে। কিন্তু সেই জল তাড়াতাড়ি নেমে যাওয়ার কথা। এই ঘটনা মাথা ব্যথার কারণ হয়ে ওঠে পুরো কর্তাদের। জল জমে থাকা এলাকার নিকাশি ব্যবস্থা নিয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে সাংঘাতিক তথ্য উঠে আসে। কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য তারক সিং বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করি কিছু নির্দিষ্ট এলাকায় জল নামছে না। কারণ খুঁজতে গিয়ে আমরা অবাক হয়ে যায়।’ রবিবার কলকাতা পুরসভার ৮০ নম্বর ওয়ার্ড এবং মহেশতলা পুরসভার এক নম্বর ওয়ার্ড সংলগ্ন রামনগরের টি জি রোডের অপর একাধিক জায়গায় ম্যানহোল খুলে ডুবুরি নামানো হয়।

    সেখান একটি ম্যানহোল থেকেই উদ্ধার হয়েছে ১৬টি বালির বস্তা। অন্য আরেকটি থেকে উদ্ধার হয়েছে লেপ, তোষক, বালিশ। আর সবগুলো থেকেই বেরিয়েছে অজস্র ইঁট। পুরসভার ডুবরি শহিদুল মোল্লা বলেন, ‘ভেতরে দু’ফুট মত পাইপের মধ্যে জিনিসপত্র জমেছিল।’ এইসব দেখে পুরসভার কর্তাদের চক্ষু চড়কগাছ। তারক সিং বলেন, ‘আমি চেয়ারম্যানের কাছে রিপোর্ট জমা দেব। তারপর একটি এনকোয়ারি কমিটি গঠন করা হবে। যারা এসব করেছে তাদের ধরতে পারলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

  • আজ শহরজুড়ে ট্যাক্সি-ক্যাব ধর্মঘট

    স্টাফ রিপোর্টারঃ ট্যাক্সি ও ক্যাব সংগঠনের ডাকে সোমবার অর্থাৎ আজ শহরজুড়ে ট্যাক্সি ও অ্যাপ ক্যাব ধর্মঘট। সংগঠনের দাবি, ট্যাক্সিতে পা দিলেই প্রথম দু-কিলো মিটারের জন্য ন্যূনতম ভাড়া হিসেবে নির্ধারিত ৩০ টাকা বাড়িয়ে ৫০ টাকা করতে হবে। পরবর্তী প্রতি কিলোমিটারে ২৫ টাকা করে ভাড়া গুনতে হবে যাত্রীদের।

    এতদিন সেই ভাড়া ছিল ১৫ টাকা।করোনায় এমনিতেই রাস্তায় বেসরকারি বাস কম। তার উপর ট্যাক্সিও যদি না চলে সেক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হতে পারে যাত্রীদের। বিশেষত দূরপাল্লার ট্রেন এবং বিমান থেকে নামা যাত্রীরা সমস্যায় পড়তে পারেন।

  • ফুলবাগান পর্যন্ত শুরু হল মেট্রোর ট্রায়াল রান

    স্টাফ রিপোর্টারঃ শনিবার শুরু হল ফুলবাগান থেকে শিয়ালদহের মধ্যে ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর ট্রায়াল রান৷ মেট্রো কর্তাদের আশা, সবকিছু পরিকল্পনা মাফিক এগোলে এ বছরের কালীপুজো ফুলবাগান থেকে শিয়ালদহের মধ্যে যাত্রী নিয়ে ছুটতে পারবে মেট্রো রেল৷ একান্তই সেই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হলে ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে শুরু হয়ে যাবে পরিষেবা৷

    সেক্ষেত্রে সরাসরি ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রেয় চেপে শিয়ালদহ থেকে সেক্টর ফাইভের মধ্যে যাতায়াত করা যাবে। যাত্রীচাপের কথা মাথায় রেখে মেট্রো কর্তাদের অনুমান, পরিষেবা শুরু হলে ব্যস্ত সময়ে ঘণ্টায় চল্লিশ হাজার যাত্রীর চাপ সামলাতে হবে শিয়ালদহ স্টেশনে৷ সেকথা মাথায় রেখে শিয়ালদহে স্টেশনে প্ল্যাটফর্মের দু’ দিক থেকেই একসঙ্গে ট্রেনে ওঠানামা করতে পারবেন যাত্রীরা৷ যাত্রীদের সুিবধায় থাকবে ১৮টি এসক্যালেটর, ৫ টি লিফট এবং স্টেশেনর ভিতরে ও বাইরে মিলিয়ে মোট ১৬টি সিঁড়ি৷

  • বয়স্ক নাগরিকদের জন্য বিশেষ উদ্যোগ কলকাতা পুরসভার

    স্টাফ রিপোর্টারঃ এবার থেকে অসুস্থ, শয্যাশায়ী, আশি বছরের বেশি বয়স্ক ব্যক্তিদের বাড়ি গিয়েই করোনার টিকা দেওয়া হবে। শনিবার ‘টক টু কেএমসি’ অনুষ্ঠানে এমনটাই ঘোষণা করলেন কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। করোনা রুখতে কোভিডবিধি মানার পাশাপাশি টীকাকরণেও জোর দিয়েছে কলকাতা পুরসভা।

    কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই পুরসভার টিকাকরণ সেন্টারে এসে টিকা নিতে পারছেন না বয়স্ক এবং শয্যাশায়ী কিংবা অসুস্থরা। এমনকী ‘টক টু কেএমসি’ অনুষ্ঠানেও অনেক প্রবীণ নাগরিক ফোন করে তাঁদের এই অসুবিধার কথা জানিয়েছেন। আর সেকারণেই রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের সঙ্গে কথা বলে এই কর্মসূচি গ্রহণ করেছে কলকাতা পুরসভা। এদিন ফিরহাদ হাকিম জানালেন, যাঁরা ৮০ বছরের ঊর্ধ্ব তাঁদেরই কেবলমাত্র বাড়ি গিয়ে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। এছাড়া ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে যাঁরা শয্যাশায়ী এবং অসুস্থ, তাঁদেরও বাড়ি গিয়ে ভ্যাকসিন দেবেন পুরসভার কর্মীরা।

    এঁদের প্রত্যেককেই ‘স্পেশ্যাল কেস’ হিসেবে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। তবে বাড়ির আশি বছরের বয়স্কদের ঊর্ধ্ব কিংবা শয্যাশায়ীদের ভ্যাকসিন দেওয়ার ক্ষেত্রে সেই বাড়ির সমস্ত প্রাপ্তবয়স্কদের আগে থেকেই ভ্যাকসিনেটেড হতে হবে। এরপর পুরসভার টিকাকরণ কেন্দ্রে গিয়ে যাঁকে টিকা দেওয়ার প্রয়োজন তাঁর আধার কার্ডের জেরক্স এবং অরিজিনাল সঙ্গে নিতে হবে। আর ৬০ বছর বয়সের ঊর্ধ্বে অসুস্থ বা শয্যাশায়ীদের ক্ষেত্রে চিকিৎসকের কাছ থেকে প্রমাণপত্র নিয়ে জমা দিতে হবে বলে এদিন ফিরহাদ জানান।

  • জল যন্ত্রণা দূর করতে ১ বছর সময় চাইলেন ফিরহাদ

    স্টাফ রিপোর্টারঃ হিডকোর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিয়ে বড় ঘোষণা করে দিলেন ফিরহাদ হাকিম। শুক্রবার তিনি জানান, এ বার শহরের বাইরেও উপনগরী তৈরি করা শুরু করবে হিডকো। শান্তিনিকেতনে ‘গীতবিতান’ নামের একটি উপনগরী তৈরি করতে চলেছে রাজ্য সরকারের আবাসন দফতরের তালিকায় থাকা এই সংস্থা।

    এ বাদেও একাধিক প্রকল্প আগামী সময় নিউটাউন এলাকায় গড়ে তোলা হবে তিনি জানান। ফিরহাদ জানিয়েছেন, নিউটাউনে একটি গ্রিন সিটি ও একটি খেল সিটি তৈরিরও পরিকল্পনা রয়েছে হিডকোর। একই সঙ্গে তিনি একটি নতুন ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেছেন। সেখানে নিউটাউনের যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে বলে উল্লেখ করেন ফিরহাদ। এর পাশাপাশি কলকাতা শহরের জমা জল নিয়েও আসার বাণী শোনান তিনি। কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক জানিয়েছেন, শহরের জল যন্ত্রণা মিটতে আরও বছরখানেক সময় লাগবে। ফিরহাদের কথায়, “আর একটা বছর লাগবে। এক বছর পর বেহালায় জলের সমস্যা আর থাকবে না। টালিগঞ্জ এলাকায় মেট্রোর কাজ চলছে।

    সেই কারণে কিছুটা সময় সমস্যা হচ্ছে। ব্যারিকেডগুলো সরিয়ে দিলে আর সমস্যা হবে না। আর খিদিরপুর এলাকায় জল জমার রোগ আজকের নয়। ১০০ বছর ধরে জল জমে। সেই জন্য আমরা পাম্পিং স্টেশন করেছি। পরের বছর আর জল জমবে না। আলিপুর বডিগার্ড লাইনেও এখানে আর জল জমবে না।”

  • ‘খেলা নয়, চাকরি চাই’ কর্মসূচিতে কলকাতা অভিযানে নামছে বিজেপি

    স্টাফ রিপোর্টারঃ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর ‘খেলা হবে’ দিবসের পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করল বিজেপি। ২০ আগস্ট ‘খেলা নয়, চাকরি চাই’ এই কর্মসূচিতে কলকাতা চলো অভিযানে নামছে বিজেপির যুব মোর্চা। চাকরির দাবীতে বিজেপির ৩৯ টি সাংগঠনিক জেলার যুব মোর্চার কর্মীরা মহানগরে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সামিল হবে বলে জানা গিয়েছে। বিজেপির সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রীর ১৬ আগস্ট রাজ্যে খেলা হবে দিবস ঘোষণা পাল্টা বিজেপির যুব মোর্চা ০৯-১৬ অগস্ট টানা ৭ দিন ধরে জেলায় জেলায় আন্দোলনে নামবে।

    এ বিষয়ে যুব মোর্চার সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দাস বলেন, ‘‘তৃণমূল সরকার ১০ বছরে ক্ষমতা থাকার পরেও রাজ্যে কোনও স্বচ্ছ নিয়োগ হয়নি। আর মুখ্যমন্ত্রী খেলা হবে দিবস পালন করছেন। তাই আমরা ২০ অগস্ট রাজ্য জুড়ে কলকাতা চলোর ডাক দিয়েছি। ওই দিন হাজার হাজার বেকার যুবক চাকরির দাবিতে রাস্তায় নামবে৷’’ মূলত, বেকার যুবকদের চাকরির দাবি। প্রতি বছর এসএসসি নিয়োগের পরীক্ষা, প্রাথমিক শিক্ষক, পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে আন্দোলনে নামবে বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে।

  • তৃণমূলের ৪ নেতা গ্রেফতার, নিজাম প্যালেসে পৌঁছালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

    বিশ্ব সমাচারের ওয়েবডেস্কঃ সকালেই গ্রেফতার করা হয়েছে ফিরহাদ হাকিম-সহ তৃণমূল কংগ্রেসের ৩ জন নেতাকে। সেই ঘটনার কিছুক্ষণ পরই নিজাম প্যালেসে সিবিআইয়ের দফতরে পৌঁছালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আপাতত সেখানেই বসে আছেন তিনি।

    সোমবার সকালে নবান্নে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন মমতা। তবে বাড়ি থেকে সোজা চলে আসেন নিজাম প্যালেসে। সকাল ১০ টা ৪৭ মিনিটে নিজাম প্যালেসে এসেই সোজা দুর্নীতিদমন শাখার ১৫ তলার অফিসে চলে যান তিনি। নীচে লিফটের কাছে দাঁড়িয়ে আছেন মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তারক্ষীরা।

    তৃণমূলের নেতা তথা আইনজীবী অনিন্দ্য রাউত জানান, ‘বেআইনিভাবে’ গ্রেফতারের প্রতিবাদে তাঁকেও গ্রেফতার করতে হবে বলে দাবি তুলেছেন মমতা। নাহলে তিনি সিবিআই দফতর থেকে বেরোবেন না। তিনি বলেন, ‘মমতা জানিয়েছেন, বেআইনিভাবে ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, তাঁকেও গ্রেফতার করতে হবে।

     

  • সাফল্যের দোরগোড়ায় ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্প

    স্টাফ রিপোর্টার : কলকাতা ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে ২৫০ জনের মধ্যে প্রায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৭০ জন কর্মী। তবু থেমে থাকেনি কাজ। যবে থেকে করোনার দাপট শুরু হয়েছে, তবে থেকেই দফায় দফায় আক্রান্ত হয়েছেন কর্মীরা। এমনকি অনেকে হাসপাতালেও ভর্তি হয়েছেন।

    আর তারই সুফল মিলতে চলেছে এই সপ্তাহের শেষের দিকে। ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর দুটো সুড়ঙ্গের কাজ প্রায় শেষ বলেই জানা যাচ্ছে। বউবাজারের যে স্থানে একের পর এক বাড়ি হুড়মুড় করে ভেঙে পড়েছিল,তার তলা দিয়ে সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ একেবারে শেষের পথে। শিয়ালদহের দিক থেকে যে বোরিং মেশিনটি বউবাজারের দিকে এসে পৌঁছনোর কথা ছিল, সেই মেশিন কিন্তু প্রায় এসে পৌঁছে গিয়েছে। দূর্গা পিতুরি লেনের নিচেই রয়েছে সেই বোরিং মেশিনটি।

    সপ্তাহ শেষে শিয়ালদহের দিক থেকে আশা বোরিং মেশিনটি এসে পৌঁছলে ইতিহাস রচনা হবে। কারণ, গঙ্গার তলা দিয়ে যে মেট্রো হাওড়া ময়দান থেকে শিয়ালদহ পর্যন্ত যাবে তার দুটি সুড়ঙ্গ সম্পূর্ণ তৈরি হয়ে যাবে।

Back to top button