প্রতিশ্রুতি দিয়েও শাশুড়ির দায়িত্ব নেননি, পুত্রবধূকে তলব বিচারপতির

স্টাফ রিপোর্টার : প্রতিশ্রুতি দেওয়া সত্ত্বেও দায়িত্ব পালন করেননি বউমা।বউমাকে হাই কোর্টে হাজির করানোর জন্য নির্দেশ দিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে,,২০১৪ সালে প্রয়াত হন পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাথমিক শিক্ষক বজ্রদুলাল মণ্ডলের।

পরিবারে ছিলেন মা, স্ত্রী এবং এক শিশুপুত্র। পরে স্বামীর চাকরি অর্থাৎ প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষিকার চাকরি পান বজ্রদুলালবাবুর স্ত্রী কৃষ্ণা পাত্র মণ্ডল। চাকরিতে যোগদানের সময় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্কুল পরিদর্শককে হলফনামা দিয়ে কৃষ্ণাদেবী জানান, বৃ্দ্ধা শাশুড়ির দেখভাল করা থেকে বজ্রদুলালের পরিবারের সমস্ত দায়িত্ব তিনি নেবেন।

কিন্তু বাস্তবে ঘটল উল্টোটাই। স্কুলশিক্ষিকার চাকরিতে যোগ দেওয়ার পর কৃষ্ণাদেবী শ্বশুরবাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন ছোট্ট ছেলেকে নিয়ে। নিজের দেওয়ার কথা অনুযায়ী শাশুড়ির দায়িত্ব নিতেও অস্বীকার করেন তিনি। বউমার জন্য তিন বছর অপেক্ষা করার পর ২০১৭ সালে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হন বৃদ্ধা দুর্গাবালা মণ্ডল।

দুর্গাবালা দেবীর আইনজীবী শৈবাল কুমার আচার্য এবং অনিন্দ্য ভট্টাচার্য জানান, আদালতের নির্দেশের পর প্রথম এক মাস শাশুড়িকে সাত হাজার টাকা দিয়েছিলেন কৃষ্ণা। কিন্তু পরে আর কোনও টাকা দেননি। বাধ্য হয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন শাশুড়ি।

মামলাটি এখন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে উঠেছে। তিনি কৃষ্ণাকে আগামী ২৯ অগস্ট সশরীরে হাই কোর্টে হাজিরার নির্দেশ দেন। পাশাপাশি, সবং থানার আইসিকে নির্দেশ দেন, ওই দিন আদালতে যাতে কৃষ্ণা হাজির হন, তা পুলিশকে নিশ্চিত করতে হবে।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!