আবারও কুসংস্কারের বলি, পাথরপ্রতিমায় সাপের কামড়ে মৃত্যু হল এক শিশুর

বিশ্ব সমাচার, পাথরপ্রতিমা : প্রশাসনের তরফ থেকে বারবার মাইকে প্রচার, এমনকি বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সচেতনতার পরেও ঘটছে বিপত্তি। আজও কুসংস্কারের উপর ভিত্তি করে জীবন যাপন করছেন গ্রামাঞ্চলের মানুষজন। সুন্দরবনে আবারও কুসংস্কারের বলি হল এক শিশু।

সাপে কামড়ানোর পর তাকে নিয়ে যাওয়া হল ওঝার কাছে। আর এই ঘটনার ফলে মৃত্যু হল রমেশ বর নামে এক ৮ বছরের শিশুর। ঘটনাটি ঘটেছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার পাথরপ্রতিমা থানার অচিন্ত্যনগর দ্বীপের বিষ্ণুপুর গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় রমেশের পায়ে একটি বিষধর সাপ কামড়ায়।

এরপরই শিশুটি চিৎকার করে ওঠে। সঙ্গে সঙ্গে তার ঠাকুরমা উঠে দেখেন বিছানার পাশে একটি বিশালাকার বিষধর সাপ শুয়ে রয়েছে। এই ঘটনা দেখার পরই তিনি বুঝে যান, তাঁর নাতিকে সাপে কামড়েছে। তড়িঘড়ি রমেশকে বাড়ির কাছাকাছি এক ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয় বলে অভিযোগ।

সেখানে দীর্ঘ ৪ থেকে ৫ ঘন্টা ঝাড়ফুঁকের পর অসুস্থ রমেশ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এরপরই নিরুপায় হয়ে হাল ছেড়ে দেয় ওই ওঝা। তড়িঘড়ি রমেশকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপরই প্রাথমিক চিকিৎসার পর চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনার পরই শিশুর মৃতদেহ নিয়ে ওঝার বাড়িতে যান গ্রামবাসীরা৷

ওঝাকে ঘেরাও করে রাখেন৷ পরে পাথরপ্রতিমা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওঝাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। একই সঙ্গে ময়নাতদন্তের জন্য রমেশের দেহ উদ্ধার করে পুলিশ থানায় নিয়ে যায়। যদিও এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুন্দরবন জুড়ে আবারও উঠতে শুরু করেছে নানান প্রশ্ন।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!