বিজেপির হয়ে ভালো ফিল্ডিং দেওয়ার পুরস্কার পেয়েছেন জগদীপ ধনকর, কটাক্ষ সুজনের

প্রদীপকুমার সিংহ, বারুইপুর: পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল পদ ছেড়ে জগদীপ ধনকরের উপরাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী হওয়া নিয়ে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী খোঁচা দিয়ে বলেছেন, উনি বিজেপির হয়ে ভালো ফিল্ডিং করেছেন। এটা তার পুরস্কার। এতে তৃণমূল ও বিজেপি দু’দলেরই সুবিধা হবে। কলকাতায় মুখ দেখাদেখি বন্ধ। অথচ পাহাড়ে ধনকরকে ফুল দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।বারুইপুরে দক্ষিণ ২৪ পরগনা সিপিআইএমের পার্টি কার্যালয়ে সুজনবাবু সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের জবাব দিচ্ছিলেন।

তিনি বলেন,রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রাক্কালে বিজেপি তাদের বিধায়কদের হোটেলে রেখেছিল। এইসব নতুন দেখছি। এর আগে বিজেপি ভিনদলের বিধায়কদের হোটেলে বন্দি করে রেখেছে। এখানে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে এত ভয় পেয়েছে যে নিজের দলের বিধায়কদের বন্দি করে রাখতে হয়েছে।সুজনবাবু বলেন, রাষ্ট্রপতি পদে এনডিএ প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মুকে ঘিরে বড় আদিবাসী প্রেমের প্রতিযোগিতা চলেছে।

বিজেপি বিধায়করা বিশেষ উত্তরীয় পরেছেন। মুখ্যমন্ত্রী সভায় গিয়ে লোক দেখানো গ্লাভস পরে নৃত্য করছেন। মানুষকে মানুষ হিসেবে না দেখে ধর্মের ভিত্তিতে চিহ্নিত করা হচ্ছে। যা উচিত নয়।সোমবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধী প্রার্থী যশবন্ত সিনহা অভিযোগ করেছেন, কেন্দ্রীয় সংস্থা দিয়ে ভোটারকে ভয় দেখানো এবং টাকা দিয়ে ভোটার কেনা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সুজয়বাবু বলেন, বিস্ফোরক অভিযোগ।

এই অভিযোগ গুরুত্ব দিয়ে দেখা উচিত। বিজেপি এই কাজ করতেই পারে বলে মত সুজনের।
দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি প্রসঙ্গে সুজনবাবু বলেন,জিএসটির নামে যেভাবে আটা, ভোজ্য তেলের দাম বাড়ানো হল, তার নিন্দা করার ভাষা নেই। পুরোপুরি জনবিরোধী এই কেন্দ্রীয় সরকার।

সোমবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সঙ্গে সঙ্গে সংসদে বাদল অধিবেশন বসে। এই নিয়ে সুজন চক্রবর্তী বলেন, সংসদকে ঠুঁটো জগন্নাথ করা হচ্ছে। প্রতিবাদ, বিক্ষোভ দেখানো যাবে না। এতে সংসদ দুর্বল হচ্ছে।

সুজনবাবু বলেন, রাজ্যে রাষ্ট্রপতি ভোটে কোনও বাম বিধায়ক নেই। বিধানসভায় না থাকলেও মানুষের পাশে রাস্তায় বামপন্থীরা আছেন। দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাঁরা আছেন।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!