আদালত চত্বরে ‘কিডন্যাপ’ শুয়োর, নিরাপত্তা নিয়ে বিরক্ত হাইকোর্ট

স্টাফ রিপোর্টার: প্রায় চার মাস আগে কিডন্যাপ হয়েছে ‘ঘনা’।‘ঘনা’ আর কেউ নয়, একটি শূকর।কল্যাণী আদালত চত্বরে ঘুরে বেড়াত শূকর। কিন্তু গত মার্চে অপহরণ করা হয় তাকে। এমন অভিযোগ তুলেই প্রথমে নিম্ন আদালত এবং পরে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হন তার মামলাকারী।মামলার বয়ান অনুযায়ী, চলতি বছরের ২৫ মার্চ বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ একটি সাদা গাড়ি ঢোকে কল্যাণী আদালত চত্বরে।

সেই গাড়ি থেকে নামে চারজন। তারাই ঘনাকে নিয়ে উধাও হয়ে যায়। সিসিটিভি ফুটেজেও ধরা পড়ে সেই ছবি।শুক্রবার সেই মামলার শুনানিতেই হাই কোর্টের বিচারপতি শম্পা সরকার পুলিশের ভূমিকায় বিরক্তি প্রকাশ করেন। এদিন বিচারপতি জানতে চান, কেন অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রিভেনশন অফ অ্যানিমাল অ্যাক্টে অভিযোগ আনা হয়নি?

আবেদনকারীর অভিযোগের ভিত্তিতে যে গাড়িতে ঘনাকে অপহরণ করা হয়, সেই গাড়ির ভিডিও থাকলেও কেন অপহরণকারীদের চিহ্নিত করা হয়নি? এরপরই বিচারপতি শম্পা সরকার নির্দেশ দেন, অবিলম্বে কল্যাণী থানার তদন্তকারী আধিকারিকের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে জেলা পুলিশ সুপারকে।

সেই সঙ্গে নদিয়ার পুলিশ সুপারের নজরদারিতে তদন্ত চালানোর নির্দেশও দেওয়া হয়। কল্যাণী আদালতের জন্য পুলিশকে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থাও করতে বলা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!