পলাতক প্রেসিডেন্ট, জারি জরুরি অবস্থা, জনরোষে পুড়ছে শ্রীলঙ্কা

সংবাদ সংস্থা: জনরোষ এড়াতে মঙ্গলবার মধ্যরাতে শ্রীলঙ্কা ছেড়ে পালিয়েছেন রাষ্ট্রপতি গোতাবায়া রাজাপক্ষে। গোতাবায়া দেশ ছেড়ে পালিয়ে আপাতত মলদ্বীপে রয়েছেন বলে খবর।সূত্রের খবর, বুধবার প্রেসিডেন্ট পদ থেকে ইস্তফা নেওয়ার কথা ছিল তার। এদিকে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে শ্রীলঙ্কা ছেড়ে পালানোর পরই বুধবার অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিঙ্ঘে।

গোতাবায়া দেশ ছেড়ে পালানোর পরই বিক্রমসিঙ্ঘে যে প্রেসিডেন্ট পদের দায়িত্ব সামলাবেন, সেটা আঁচ করতে পেরেছিলেন বিক্ষোভকারীরা। তাই তাঁরা হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, বিক্রমসিঙ্ঘে যেন কোনও ভাবেই প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব না নেন। শুধু তাই-ই নয়, স্থানীয় সময় দুপুর ১টার মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিতে হবে তাঁকে। না হলে আরও অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠবে দেশের পরিস্থিতি।

কিন্তু সেই সব হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করেই জনরোষের মধ্যেই বুধবার অস্থায়ী প্রেসিডেন্টের শপথ নেন বিক্রমসিঙ্ঘে। আর তার পরই গোটা দেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করলেন তিনি।এদিকে রাজাপক্ষের দেশ ছাড়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই শ্রীলঙ্কায় বিক্ষোভের আঁচ আরও তীব্র হয়। বুধবার সকাল থেকে আবার নতুন করে জনরোষের ছবি দেখা যায় শ্রীলঙ্কায়। বিক্ষোভকারীরা প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ঘিরে ফেলে।

আর বাসভবন ঘিরে ফেলতেই দফায় দফায় সেনা এবং পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে এবং বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ব্যবহারের পাশাপাশি লাঠিচার্জও করা হয়। কিন্তু তাতেও দমানো যায়নি বিক্ষোভকারীদের। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের পাঁচলি টপকে তাঁরা ঢুকে পড়েন।অন্য দিকে, পার্লামেন্টের উদ্দেশেও মিছিল করে যান বিক্ষোভকারীরা।

কিন্তু পার্লামেন্টের ২০০ মিটার আগেই তাঁদের আটকে দেওয়া হয়।বিক্ষোভকারীদের দাবি, ‘আমরা চাইছি প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করুন। আমাদের সংবিধান অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি ইস্তফা দিলে প্রধানমন্ত্রীই হন কার্যকরী প্রেসিডেন্ট। তাই মানুষ চাইছে, ওঁরা দু’জনই পদত্যাগ করুন।’ পত্রিকাটি মুদ্রণে যাওয়ার আগে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর দখলের চেষ্টা করছে তারা।

রাষ্ট্রপতি ভবন এখনও তাদের দখলেই রয়েছে।এই পরিস্থিতিতে আগামী ২০ জুলাই নয়া শ্রীলঙ্কায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে বলে বুধবার জানিয়েছেন সে দেশের পার্লামেন্টের স্পিকার য়ুপা অবেবর্ধনে।তবে আগামী ২০ জুলাই শ্রীলঙ্কায় নয়া প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ঘোষণা করলেও কী পদ্ধতিতে তা হবে, সে বিষয়ে কিছু জানাননি তিনি।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!