পাথরপ্রতিমায় একুশে জুলাইয়ের প্রস্তুতি সভা তৃণমূলের

রবীন্দ্রনাথ সামন্ত, পাথরপ্রতিমা: সোমবার পাথরপ্রতিমার শ্রীধরনগরে অনুষ্ঠিত হয় একুশে জুলাইয়ের প্রস্তুতি সভা। শ্রীধরনগর অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে এই সভা হয়। সভায় পাথরপ্রতিমার বিধায়ক সমীরকুমার জানা বলেন, ১৯৯৩ সালে মমতা ব্যানার্জি ভারতবর্ষের মধ্যে কেন্দ্রে প্রথম এপিক কার্ডের দাবি করেছিলেন।

তখন বামফ্রন্ট সরকারের বিরুদ্ধে ভুয়া ভোট রুখতে তিনি উপলব্ধি করেছিলেন নো আইডেন্টিটি, নো ভোট। আইডেন্টিটি কার্ড না থাকলে রামের ভোট শ্যাম দেবে, শ্যামের ভোট যদু দিয়ে দেবে। এই কাজ বন্ধ করতে গেলে এপিক কার্ড তৈরি করার কথা ভাবতে হবে। তাই এই ভাবনাকে মাথায় রেখে তখন মমতা ব্যানার্জি মহাকরণ অভিযানের ডাক দিয়েছিলেন। মহাকরণ অভিযান আন্দোলনে সেদিন লক্ষ লক্ষ মানুষ সাড়া দিয়েছিলেন।

গ্রামগঞ্জে সিপিআইএমের অত্যাচার অবিচারের কথা মানুষ একদিন অনুভব করতে পেরেছিলেন। এই আন্দোলনের গুরুত্ব কংগ্রেসের অনেকে সেদিন এটা মেনে নিতে পারেননি। কারণ তখন কংগ্রেসের সঙ্গে সিপিএমের একটা ভেতরে ভেতরে যোগসূত্র ছিল বলে সমীরবাবু জানান।

তিনি বলেন, মমতা ব্যানার্জির মহাকরণ অভিযানের সময় যখন লক্ষ লক্ষ মানুষ বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উপস্থিত হয়েছিলেন আন্দোলনের গতিকে ত্বরান্বিত করতে, ঠিক সেই সময় ওই আন্দোলনকে প্রতিহত করার জন্য তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর পুলিশ সাধারণ মানুষের উপর গুলি চালিয়েছিল।

ফলে বেশ কয়েকজন সাধারণ মানুষ শহিদ হয়েছিলেন। সেদিন ছিল ১৯৯৩ সাল ২১শে জুলাই। তাই সিপিএমের সেই নির্মম গণহত্যার প্রতিবাদ জানাতে প্রতিবছর একুশে জুলাই শহিদ দিবস পালন করা হয়।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!