শহিদ দিবসের সমর্থনে তৃণমূলের মহামিছিল বারুইপুরে

প্রদীপকুমার সিংহ, বারুইপুর: বুধবার বারুইপুরে তৃণমূল কংগ্রেসে একুশে জুলাই শহিদ দিবসের সমর্থনে মহামিছিল বের করে তৃণমূল কংগ্রেস মিছিলে পা মেলান বিধানসভার অধ্যক্ষ তথা বারুইপুর পশ্চিমের বিধায়ক বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যসভার সদস্য শুভাশিস চক্রবর্তী, বালিগঞ্জের বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়, রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ, তৃণমূলের সম্পাদক দেবাংশু ভট্টাচার্য, বিধায়ক ফিরদৌসি বেগম সহ অন্যরা।

বারুইপুরের রাসমাঠ থেকে মহকুমা শাসকের অফিস পর্যন্ত এই মহামিছিল হয়। পরে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের অনুরোধে বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয় গান গেয়ে শোনান। পাশাপাশি দেবাংশু ভট্টাচার্য ‘খেলা হবে’ স্লোগান তুলে ধরেন।রাজ্য তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ সাংবাদিকদের বলেন, বিরোধীদের চক্রান্ত ও কুৎসার জবাব মিলেছে আজকের ভোটের ফলে।

বিজেপি সাইনবোর্ড থেকে ভিজিটিং কার্ডে পরিণত হয়েছে। ওরা টুইট, ফেসবুক, রাজভবনে আছে। বিজেপি মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন। এরা অশুভ শক্তি। ভাগ করতে চাইছে রাজ্যকে। উন্নয়নের ফলেই তৃণমূলের জয় আসছে। বিভিন্ন বিভাগে ভারতে সেরা রাজ্য। তৃণমূলের ভোট বাড়ছে। রাজ্য বিজেপি এখন দিল্লিতে জেঠুর কাছে যাবে এজেন্সি পাঠানোর জন্য।

রাজ্যপালের কাছে আমরা গিয়েছিলাম বিজেপিতে যারা দুর্নীতিতে অভিযুক্ত তাঁদের কাছে কেন এজেন্সি যাচ্ছে না, সেকথা বলতে। আমাদের সঙ্গে দু’ঘণ্টা কথা বলার পর রাজ্যপাল শুধুমাত্র রাজনৈতিক পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে বিজেপির কথা নিজের টুইটে তুলে ধরেছেন। শুভেন্দু ও মুকুল রায়, সুজন চক্রবর্তী সহ সারদাকাণ্ডে যাঁদের নাম আছে, তাঁদের গ্রেপ্তার করা হোক।

বারুইপুরে কিছুদিন আগে বিরোধী দলনেতা তথা বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী এসে বলেছিলেন, ২০২৪ সালে তাঁরা পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা দখল করবেন। এই কথার পরিপ্রেক্ষিতে বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বারুইপুরের পথসভায় বলেন, এগুলো অবাস্তব কথা।।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!