পাথরপ্রতিমার সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া নেহা ডাক্তার হতে চায়

রবীন্দ্রনাথ সামন্ত, পাথরপ্রতিমা: মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাথরপ্রতিমা ব্লকের মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে নেহা মাইতি। সে পাথরপ্রতিমা আনন্দলাল আদর্শ বিদ্যালয়ের ছাত্রী। তার প্রাপ্ত নম্বর ৬৭৫। বাংলায় ৯৪, ইংরেজিতে ৯৭, গণিতে ১০০, ভৌত বিজ্ঞানে ৯৯, জীবন বিজ্ঞানে ৯৭, ভূগোলে ৯৮ এবং ইতিহাসে ৯০ পেয়েছে। নেহার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রভাকর দাস জানান, নেহা পঞ্চম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ভালো ছাত্রী হিসেবে পরিচিত।

ওর অধ্যাবসায়ের ফলে কৃতিত্ব অর্জন করতে পেরেছে এবং আমাদের বিদ্যালয়কে গৌরবান্বিত জায়গায় পৌঁছে দিয়েছে। ভবিষ্যতে সে আরও বড় জায়গায় পৌঁছবে বলে আশাবাদী প্রধান শিক্ষক।নেহা বাবা-মায়ের এক সন্তান। আজ থেকে ১২ বছর আগে সে বাবাকে হারিয়েছে। মা মাধবনগর গ্রামীণ হাসপাতালের স্টাফ নার্স।

বাবা মারা যাওয়ার পর নেহার সমস্ত দায়িত্ব সামলেছেন মা তৃষ্ণা মাইতি। পড়াশোনার ব্যাপারে নেহার মায়ের ভূমিকা ছিল অপরিসীম। প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা নিয়মিত পড়াশোনা করত নেহা। ইতিহাস বাদে সমস্ত বিষয়ে তার প্রাইভেট টিউটর ছিল। পড়াশোনার পাশাপাশি নেহা গানও ভালো গাইতে পারে।

নেহা উচ্চ মাধ্যমিকে বিজ্ঞান বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করতে চায়। বড় হয়ে একজন আদর্শ ডাক্তার হতে চায় সে। কারণ তার বাবা একজন গ্রামীণ চিকিৎসক ছিলেন। তাই বাবার মতো ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবা করতে চায় নেহা। সেই ইচ্ছাপূরণের লক্ষ্যে এখন স্বপ্ন দেখছে পাথরপ্রতিমার নেহা।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!