নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে রাজ্যকে তুলোধনা বিরোধীদের

স্টাফ রিপোর্টার : এসএসসি-র গ্রুপ সি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় রঞ্জিত বাগ কমিটির রিপোর্টের ছত্রে ছত্রে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ত্রুটি ও দুর্নীতির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এনিয়ে রাজ্য সরকারকে একহাত নিলেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন, ‘ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ্যমন্ত্রিত্বের এই ১০-১১ বছরে নীতিহীনতা-দুর্নীতি চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে। ২২২ জন এমন যাঁদের লিস্টে কোনও নাম নেই। কোথাও কিছু নেই, তাহলে এই ২২২ জন ভূতের মতো এল কোথা থেকে ? শুধু টাকা। কত কোটি টাকা ?

প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে দুর্নীতি। লেখাপড়া করা ছেলেমেয়েগুলো পাস করেছে। তারা চাকরি করবে বলে বাবা-মা স্বপ্ন দেখছেন। তারা কোনও প্রতিবাদ করতে পারবে না। বিক্ষোভ করলে পুলিশ পেটাবে। হাজতে নিয়ে যাবে । কী হচ্ছে এসব ? আর শিক্ষামন্ত্রী যে কমিটি গড়লেন সেটাই বেআইনি। বোঝা গেল, কমিটিটা টাকা জোগাড় করার জন্য করা হয়েছে। টাকার বিনিময়ে নিয়োগ হবে, আর লেখাপড়া করা ছেলেমেয়েগুলো রোজ আক্রান্ত হবে, মার খাবে- এ কখনো চলতে পারে ?

তারা কষ্ট করে রাস্তায় পড়ে থাকবে, আর বিকাশ ভবনে সবাই শান্তিতে থাকবে ? কারা কারা ছিলেন ? তাঁদের বেআইনি সম্পত্তি কত হয়েছে ? তার ভাগ কে কে পেয়েছেন ? এগুলো টেনে বের করতে হবে। আমাদের রাজ্যে শিক্ষার সর্বনাশ করছে এই সরকার এবং তাদের ব্যবস্থা এটা আরও একবার স্পষ্ট। বাগ কমিটির রিপোর্টের পর শিক্ষামন্ত্রীর যদি ন্যূনতম বোধ থাকে পদত্যাগ করুন।’

এনিয়ে রাহুল সিনহা বলেন, ‘স্ক্রিনিং কমিটির নাম করে একটা বিরাট দুর্নীতির চক্র ওখানে বসেছিল। পরীক্ষা না দিয়েই ২২২ জনের চাকরি হয়ে গেছে, এত বড় দুর্নীতির খবর এর আগে প্রকাশ্যে আসেনি। এই দুর্নীতির মূলচ্ছেদ করা দরকার।’

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!