২৭ তম কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে সাজছে নন্দন ও রবীন্দ্রসদন

বিমল বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: বিশ্ব চলচ্চিত্র পরিচালকদের ভিতর সেরা পরিচালকদের তালিকায় সত্যজিৎ রায় চিরদিন অমলিন হয়ে থাকবেন। এ নিয়ে কলকাতার মানুষ রীতিমতো গর্ব
অনুভব করে। সেই কারণে প্রতিবারই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব হলেই ফেলুদার সৃষ্টিকর্তা সত্যজিত রায়কে স্মরণ ও শ্রদ্ধার ভিতর দিয়ে নস্টালজিক হয়ে যায় চলচ্চিত্র প্রেমীরা।

আসলে তাঁর পরিচালনার ছবি, লেখা, সঙ্গীত, সুর সব মিলিয়ে এই সমাজ ব্যবস্থার চালচিত্র-র সম্পর্কে একটা আলাদা বার্তা দিয়ে থাকে। উদাহরণ অরণ্যের দিনরাত্রী। ১৯৭০ সালে তাঁর তৈরি এই ছবি যে এখনও কতটা প্রাসঙ্গিক তা বোঝাতে এবার ২৭ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনীতে রাখা হয়েছে। আগামী সোমবার ২৫ এপ্রিল বিকেলে নজরুল মঞ্চে এর উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ওই দিন সাড়ে পাঁচটার সময় সত্যজিত রায়ের এই ছবি নজরুল মঞ্চ ও রবীন্দ্রসদনে একই সঙ্গে দেখানো হবে। আরও একটা সুখবর হল, পথের পাঁচালিও এবারের উৎসবে রাখা হয়েছে। শুধু তাই নয়, এবার সত্যজিৎ রায়কে শ্রদ্ধা ও স্মরণের পাশাপাশি তাঁর ছবিতে এ যাবৎ যতজন শিল্পী অভিনয় করেছেন। এর ভিতর যাঁরা বেঁচে রয়েছেন, তাঁদের সকলকে এই উৎসব কমিটি এবার সম্বর্ধনার মাধ্যমে সম্মান জানাবে। পাশাপাশি সত্যজিতবাবুর ক্যামেরাম্যান থেকে টেকনিক্যাল যাঁরা তাঁদেরও সম্মান জানাতে বিশেষ আয়োজন করা হয়েছে।

এদিকে, এই উৎসব ঘিরে রবীন্দ্রসদন, নন্দন, সহ সংলগ্ন এলাকায় এখন সাজো সাজো রব। শনিবার বিকেলে নন্দন চত্বরে গিয়ে দেখা গেল গোটা এলাকায় সাজানোর কাজ চলছে। কোথাও আলো দিয়ে কোথাও লোগো ব্যবহার হচ্ছে। কোথাও উৎসবের নজর কাড়া কোলাজ লাগানো হয়েছে। সন্ধ্যা হতেই আলোর ঝলকানিতে চোখ ঝলেছে যাওয়ার জোগাড়। এর ভিতর নন্দন চত্বরে ছড়িয়ে থাকা আম গাছের ডালে ডালে কচি আমের দুলুনিতে উৎসব প্রাঙ্গণ পরিবেশকে আরও জীবন্ত করে
দিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!