রাধাকৃষ্ণ থেকে অক্টোপাস বালির ভাস্কর্য দেখতে ভিড় বকখালির সমুদ্র সৈকতে

অমিত মণ্ডল ও রবীন্দ্রনাথ মণ্ডল, বকখালি:
বালির তৈরি ভাস্কর্য এবার বকখালিতে পর্যটকদের মন কাড়ল। সকাল থেকেই পর্যটকরা সৈকতে ভিড় জমাতে শুরু করেছিলেন। হঠাৎ দেখেন, একদল যুবক-যুবতী বকখালি সমুদ্র সৈকতে বালির ভাস্কর্য বানাতে ব্যস্ত। টানা পাঁচ ঘণ্টার চেষ্টায় মুঠো মুঠো বালি দিয়ে ভাস্কর্য তার পূর্ণরূপ পেল। রঙিন ভাবে সেজে উঠেছিল বালির তৈরি ভাস্কর্য। আর তা দেখে উচ্ছ্বসিত বকখালিতে ঘুরতে আসা পর্যটকরা।

শুক্রবার ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ওয়ার্কশপ হয় বকখালির সমুদ্র সৈকতে। পশ্চিমবঙ্গ সহ বাংলাদেশ, ওড়িশা থেকে কয়েকজন শিল্পী বালুর ভাস্কর্য বানাতে বকখালিকেই বেছে নেন। পঞ্চরথী গ্রুপের ৩০ জন সদস্য-সদস্যা মিলে বিভিন্ন রকম শিল্পকলার কারুকার্য তুলে ধরেন বকখালির সমুদ্র সৈকতে। তাঁরা পাঁচটি গ্রুপে ভাগ হয়ে গিয়ে সন্ধ্যা পর্যন্ত মোট ছ’টি বালির ভাস্কর্য ফুটিয়ে তোলেন। বালি দিয়ে তৈরি রাধাকৃষ্ণ থেকে অক্টোপাস সহ নানা ভাস্কর্য দেখতে ভিড় জমান পর্যটকরা।

পঞ্চরথী গ্রুপ সেমিনারের প্রেসিডেন্ট তন্ময় হালদার জানান, বকখালি সি বিচের বালি খুবই ভালো। বকখালিতে এই প্রথমবার তাঁরা ভাস্কর্য বানিয়েছেন। সাধারণ মানুষের সহযোগিতাও পাওয়া গিয়েছে।কাঁকড়া থেকে শুরু করে অক্টোপাস, রাধাকৃষ্ণের যুগলবন্দি রূপ, সবটাই বালুর ভাস্কর্যের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলেছিলেন পঞ্চরথী গ্রুপের সদস্যরা। সকাল থেকেই পর্যটক থেকে শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দারা এই ইন্টারন্যাশনাল ওয়ার্কশপ দেখতে ভিড় জমান।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!