রাজ্যে খুলল স্কুল, পড়ুয়াদের উপস্থিতিতে সরগরম ক্লাসরুম

স্টাফ রিপোর্টার ঃ কোভিড আবহে খুলে গেল স্কুল -কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়।বাজল ঘণ্টা। আবারও বাড়ির দরজায় এসে দাঁড়ালো স্কুল বাস। আবারও পড়ুয়ারা পা রাখল তাঁদের প্রিয় স্কুলের চৌহদ্দিতে। স্কুল গুলিতে মঙ্গলবার সকাল থেকেই দেখা গেল সেই ছবি।আশংকা ও উদ্বেগ ছাপিয়ে অবশ্য এদিন চোখে পড়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের চোখ মুখেরই ক্লান্তিহীন আনন্দ। বন্ধুদের কাছে পাওয়ার। চেনা ক্লাসরুমের আশ্রয়ে আবারও হেসে খেলে উঠেছে ওরা।

সকাল থেকে শহর কলকাতা থেকে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সরগরম হয়ে উঠেছে পড়ুয়াদের উপস্থিতিতে।তবে এবার স্কুলে প্রবেশ আর আগেরমতো নেই। রীতিমত সময় লাগছে তাতে। দেহের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে, স্যানিটাইজ করে তবেই ক্লাসরুমে ঢোকার অনুমতি মিলছে। তবু দীর্ঘদিন পর প্রিয়বন্ধুদের কাছে পেয়ে আনন্দের সীমা নেই কিশোর-কিশোরীদের। আপাতত নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস চালু হয়েছে।

পরে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে ছোটদের ক্লাসও চালু হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।তবে এবারের ক্লাসরুমের চেহারা খানিক ভিন্ন। এক বেঞ্চে প্রিয়বন্ধুদের গা-ঘেঁষাঘেঁষি করে বসা বারণ। কোভিডের বিপদ যে এখনও কাটেনি। মহামারী সংক্রমণ চোখ রাঙাচ্ছে এখনও। তাই শারীরিক দূরত্ববিধি বজায় রাখা আবশ্যিক। এক বেঞ্চে ন্যূনতম ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রেখে বসতে হবে।

আর এই এই দূরত্ববিধির হিসেব কষতে গিয়ে দেখা যাচ্ছে, বেঞ্চ পিছু ২ জন করে পড়ুয়া বসছে। ক্লাসে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। নাহলে স্কুলের গেট থেকেই বিদায় নিতে হবে। এক মহামারী যে বদলে দিয়েছে নিত্যদিনের জীবন। তবু এতদিন পর স্কুলের খোলা হাওয়ায় ফেরা বড় কম নয়। খুশি শিক্ষকরাও।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!