আগরতলার পুরভোটের আগে ‘নবরত’ ইস্তেহার প্রকাশ তৃণমূলের

স্টাফ রিপোর্টার ঃ আগরতলায় পুরসভা নির্বাচনের আগেই প্রকাশিত হল তৃণমূলের ইস্তেহার। নাগরিক পরিষেবার উন্নয়ন থেকে মহিলাদের নিরাপত্তা, পুরকরে ছাড় থেকে মেয়রের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের ব্যবস্থা করার মতো ন’টি প্রতিশ্রæতি দিল তৃণমূল। চলতি মাসের শেষেই রয়েছে আগরতলায় পুর নির্বাচন। তার আগেই মঙ্গলবার তৃণমূলের ইস্তেহার প্রকাশ। এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে ইস্তেহার প্রকাশ করেন তৃণমূল নেতৃত্বরা। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়, বাংলার মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন, সাংসদ সুস্মিতা দেব, প্রাক্তন সাংসদ অর্পিতা ঘোষ, বিধায়ক জুন মালিয়া, বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী এবং ত্রিপুরার স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য সুবল ভৌমিক।

প্রকাশিত ইস্তেহারে নারী সুরক্ষায় জোর দিয়ে পিঙ্ক অটো বা ট্যাক্সি নামানোর কথা বলা হয়েছে। রয়েছে কলকাতার ‘টক টু মেয়র’-এর মতো ‘হ্যালো মেয়র’ পরিষেবা। এমনকী, জলকরে ছাড় দেওয়ার কথা বলেছে তৃণমূল। প্রতিশ্রæতি’র প্রথমেই রয়েছে ‘উন্নত নগর, উন্নত সমাজ’। এর মধ্যে রয়েছে খানাখন্দহীন রাস্তা, বিনামূল্যে ওয়াইফাই, বায়ো টয়লেট, ভ‚গর্ভস্থ কেবলিং, বৈদ্যুতিক চুল্লি তৈরির কথা। রয়েছে ‘পরিচ্ছন্ন আগরতলা, নির্মল ত্রিপুরা’।

শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে একাধিক উদ্যোগ নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে ইস্তেহারে। তৃণমূল আগরতলা পুরসভা দখল করলে বাসিন্দাদের আর জলকর দিতে হবে না। শর্তসাপেক্ষে স¤পত্তি কর ২০ শতাংশ কমানো হবে। প্রতিশ্রæতিতে বলা হয়েছে, আগরতলায় তৈরি হবে ওয়াটার এটিএম। আর বলা হয়েছে, ‘সামাজিক উন্নয়নের জন্য হকারদের বিশেষ ব্যবস্থা করা হবে। পুরকর্মীদের জন্য বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা থাকবে বলেও জানিয়েছে তৃণমূল।

‘জন অভিযোগ নি®পত্তি’ করতে পাঁচ ওয়ার্ডে বিশেষ কেন্দ্র তৈরি করা হবে। মেয়রের সঙ্গে কথা বলতে থাকবে বিশেষ মোবাইল নম্বর। সরাসরি মেয়রকে জানানো যাবে অভিযোগ। ‘সুস্বাস্থ্যর আশ্বাস’। ডেঙ্গু-ম্যালেরিয়াবিহীন আগরতলা উপহার দেওয়ার প্রতিশ্রæতি দিয়েছে তৃণমূল।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!