কন্যাসন্তান অবহেলার পাত্রী নয়, নিজের মেয়েকেই লক্ষ্মীরূপে পুজো করে বার্তা দিলেন দম্পতির

স্টাফ রিপোর্টার : কন্যাসন্তান মানেই অবহেলার পাত্রী নয়। বরং মেয়ে হল লক্ষ্মী। পাড়াপড়শি-সহ সমাজকে এই বার্তা দিতে মাটির প্রতিমার বদলে নিজেদের মেয়েকেই চিন্ময়ী লক্ষ্মীরূপে পুজো করে নজির গড়লেন কৃষ্ণগঞ্জের বিশ্বাস দম্পতি।বিশ্বাস বাড়ির ছেলে দেবাশিস ও তাঁর স্ত্রী মিতালির একমাত্র কন্যা দেবাদৃতা প্রতিমার আসনে আসীন। দশ বছরের মেয়েটির পরনে লাল শাড়ি, মাথায় মুকুট।

পদ্ম, কলসি, বরাভয়মুদ্রায় গেরস্তবাড়ির আটপৌরে কন্যাই যেন জীবন্ত লক্ষ্মী।শাস্ত্র মেনে যথাবিহিত মন্ত্রপাঠ করে দেবীজ্ঞানে ওই মানবকন্যাকে পুজো করে পুরোহিত শ্যামল মুখোপাধ্যায়ও আপ্লুত।মিতালির কথায়, “মেয়েরা সমাজের বড় সম্পদ। আমার মেয়ে হওয়ার পর আমাদের সংসারের উন্নতি হয়েছে। তাই আমরা স্বামী-স্ত্রী মিলে সিদ্ধান্ত নিলাম, এ বছর মাটির প্রতিমা বাদ দিয়ে নিজের মেয়েকেই লক্ষ্মীরূপে পুজো করব।

আমরা চাই, প্রতিটি মানুষ যেন নিজেদের কন্যাসন্তানকে মাতৃরূপে সম্মান করেন।” দেবাশিসবাবুর ব্যাখ্যা, সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে কন্যাসন্তানের প্রতি অবহেলা ও বৈষম্যমূলক আচরণ দেখা যাচ্ছে। তারই নিরিখে এটা তাঁদের একটা বার্তা।মঙ্গলবার সন্ধেয় নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জের শ্যামনগর গ্রামের বিশ্বাস বাড়িতে এই অভিনব লক্ষ্মী আরাধনার সাক্ষী হতে ভিড় ভেঙে পড়ে।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!