সিংঘু সীমানায় নারকীয় হত্যাকাণ্ডে আত্মসমর্পণ এক যুবকের

সংবাদ সংস্থা : সিংঘু সীমানায় কৃষক আন্দোলনের মঞ্চের পাশ থেকে ক্ষত বিক্ষত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করল হরিয়ানা পুলিশ। শুক্রবার সরবজিত সিং নামে ওই যুবক পুলিশের কাছে গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন।পুলিশ সূত্রে খবর, সরবজিৎ সিং নামের ওই ব্যক্তি শিখদের নিহং সম্প্রদায়েরই একজন। পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে তিনি বলেন, এই নৃশংস খুনের পিছনে তিনিই দায়ী। মেডিক্যাল পরীক্ষার পর তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, তা ফের খতিয়ে দেখে এই ব্যক্তিকে চিহ্নিত করার চেষ্টা করবে পুলিশ। শুক্রবার সকালেই কৃষক আন্দোলন মঞ্চের পাশ থেকে একটি মৃতদেহ উদ্ধার হয়। নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয় ওই যুবককে। খুনের পর মৃতের হাত কেটে ব্যারিকেডে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।

শুধু তাই নয়, দেহটি ১০০ মিটার পর্যন্ত টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হয় বলেও তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ। মৃতদেহে ধারাল অস্ত্রের কোপও রয়েছে।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে নিহত যুবকের নাম লখবীর সিং। ৩৫ বছর বয়স। পঞ্জাবের তরণ তারণ জেলার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। দলিত লখবীর একজন শ্রমিক। তাঁর স্ত্রী ও তিন মেয়ে আছে।

সবথেকে ছোট মেয়ের বয়স ৮ বছর। বড়জনের বয়স ১২। লখবীরের দেহ আপাতত উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।শুক্রবার সকালে এই দেহ উদ্ধারের ঘটনাটি সামনে আসে।আর সন্ধেতেই সেই সম্প্রদায়েরই সরবজিৎ সিং আত্মসমর্পণ করলেন।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!