12 Jun 2021, 10:40 AM (GMT)

Coronavirus Stats

29,359,155 Total Cases
367,097 Death Cases
27,911,384 Recovered Cases
খবররাজ্য

শীতলকুচির ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজ্যে শুরু মৃত্যু-তরজা

বিশ্ব সমাচারের ওয়েবডেস্কঃ “তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রীয় বাহিনী ঘেরাও মন্তব্যের সাথে শীতলকুচির চার ব্যক্তির হত্যার সাথে যোগসূত্র রয়েছে। দিদি এমনটা না বললে এই ঘটনা ঘটত না।” সোমবার ধূপগুড়িতে এমনটাই জানান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ।

অবশ্য তৃণমূলের পাল্টা জবাব এই ঘটনা বিজেপির ‘পূর্ব-পরিকল্পিত’। মমতার দাবি, ‘যাঁর নেপথ্যেই রয়েছে অমিত শাহ স্বয়ং’।

এদিন দার্জিলিং জেলার ফাঁসিদেওয়ার জনসভা থেকে শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে তোপ দাগেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। জনসভা থেকে অত্যন্ত প্রত্যয়ের সাথে দাবি করেন,’মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন।

আর এই ঘটনার পূর্ণ তদন্ত করবে রাজ্য সরকার।’ তারপরই বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে বলেন, ‘কেঁচো খুঁড়তে কেউটে না বেরিয়ে যায়।’ সভা থেকে এক বিজেপি নেতার পুরোনো মন্তব্যের অডিও রেকর্ডও শোনান তিনি। যেখানে সায়ন্তন বসুর মত গলায় এক ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, “যদি বুথ দখল করতে আসে, সিআরপিএফকে বলে দেবো গুলি যেন বুক লক্ষ্য করে যায়, পা লক্ষ্য করে নয়।”

 

 

দিলীপ ঘোষের ‘আরও শীতলকুচি হবে’ এবং রাহুল সিনহার ‘৪ জনকে মেরে ভুল করেছে, ৮ জনকে মারা উচিত’, মন্তব্য নিয়েও আক্রমন করেন তিনি। বলেন ‘প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমি বিনীত ভাবে আবেদন করবো, আপনাদের মধ্যে যদি নূন্যতম মনুষ্যত্ব, মানববোধ ও বিবেকবোধ থেকে থাকলে রাহুল সিনহা এবং দিলীপ ঘোষকে বহিস্কৃত করে প্রমান করুন এই ঘটনায় দিল্লির কোনো ইন্ধন নেই।’ এই ঘটনায় সরব হয়েছে সংযুক্ত মোর্চাও। তাঁদের দাবি,’মৃত্যুর ঘটনায় গ্রামবাসীদের সিআরপিএফের ওপর চড়াও হওয়ার কোন প্রমাণ নেই।

বর্তমানে স্মার্ট ফোনের যুগে তাঁর কোন ফুটেজও নেই। কোন ভিত্তিতে এগোচ্ছে নির্বাচন কমিশন? এখানে পক্ষপাতিত্বের প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।’

অপরদিকে বিজেপি কর্মী আনন্দ বর্মনের মৃত্যু নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি নেতারা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেই প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মৃত্যু নিয়ে রাজনীতির অভিযোগ এনেছেন। তাঁর দাবি, ‘চারজনের মৃত্যু নিয়ে সরব তৃণমূল সুপ্রিমো কিন্তু বিজেপি কর্মীর মৃত্যুতে কোন দুঃখ নেই।

‘ উত্তরে মমতা জানান, ‘ওঁরা নিজেরা নিজেদের লোককে মেরে হিন্দু-মুসলিম করছে।’ তবে পঞ্চম দফার নির্বাচনের আগে রাজ্য জুড়ে মৃত্যু-তরজা বেড়েই চলেছে। বাড়ছে রাজনৈতিক চাপানউতর।

Related Articles

Back to top button