24 Jul 2021, 11:09 AM (GMT)

Coronavirus Stats

31,332,159 Total Cases
420,043 Death Cases
30,503,166 Recovered Cases
খবরদক্ষিণ ২4 পরগণা

বৃষ্টিতে গোচরণ থেকে মথুরাপুর পর্যন্ত কুলপি রোড মরণফাঁদ, ঘটছে দুর্ঘটনা, নির্বিকার প্রশাসন

প্রদীপকুমার সিংহ, বারুইপুর: একদিনের বৃষ্টিতে রাস্তা আর রাস্তা নেই। পিচের আস্তরণ উঠে বেরিয়ে পড়েছে রাস্তার কঙ্কাল। বড় বড় খানাখন্দে ভর্তি। জল জমে হয়েছে মরণফাঁদ। নিত্য ঘটছে দুর্ঘটনা। বর্ষার শুরুতেই এমনই চিত্র গোচরণ থেকে মথুরাপুর পর্যন্ত কুলপি রোডের। অভিযোগ, রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু হলেও মাঝপথে বন্ধ হয়ে যায়। আর সব জেনে-দেখেও প্রশাসন নির্বিকার। কবে রাস্তা সংস্কার হবে, তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ মানুষ।

এই নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত পূর্ত দপ্তরের অতিরিক্ত বাস্তুকাররা। যদিও জয়নগরের বিধায়ক বিশ্বনাথ দাস বললেন, রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু হয়েছিল। ভোটের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। এখন বর্ষা এসে যাওয়ায় কাজ শুরু করতে সমস্যা হচ্ছে। কুলপি রোডের বাংলার মোড় পেরিয়ে দক্ষিণ বারাসতে ঢোকার মুখেই নজর পড়বে বেহাল রাস্তা। এরপর বহুড়ু, জয়নগর, দক্ষিণ বিষ্ণুপুর যত এগোনো যাবে, কঙ্কালসার দশা প্রকট হবে। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন কয়েকশো গাড়ি চলাচল করে। খোদ বিধায়কের বাড়ি দক্ষিণ বারাসতে বৃষ্টি হলেই রাস্তায় বড় বড় গর্তে জল জমে ঢেউ খেলে। একে এবড়ো-খেবড়ো রাস্তা, তার উপর যত্রতত্র পড়ে রয়েছে স্টোনচিপ। এর জেরে সাধারণ মানুষজন ক্ষুব্ধ। ভুক্তভোগী বাসিন্দাদের অভিযোগ, রাস্তা দিয়ে কোনও গাড়ি করে গেলে কান্না পায়। গাড়িতে উঠে ইষ্টনাম জপ করতে হয়।

রাস্তা এতই বেহাল যে জল জমে থাকলে খানা-খন্দ বোঝা যায় না। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের আন্দোলনের চাপে গোচরণ থেকে দক্ষিণ বারাসত পর্যন্ত কিছু এলাকায় নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে কাজ শুরু হয়েছিল। এরপর ভোট কড়া নাড়তেই তা বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু ভোট মিটতেই নেতাদের রাস্তা মেরামতের প্রতিশ্রুতি উধাও। বাসিন্দাদের আশঙ্কা, ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হলে আরও শোচনীয় অবস্থা হবে। অনেকেই বললেন, এই রাস্তা দিয়েই প্রতিদিন বিধায়ক থেকে শুরু প্রশাসনের লোকজন চলাফেরা করেন। তাঁরা দেখে-জেনেও নীরব রয়েছেন।

রাস্তার অবস্থা নিয়ে গাড়িচালকরাও ক্ষুব্ধ। তাঁরা বলেন, গর্তে পড়ে প্রতিদিন গাড়ি উল্টে যাচ্ছে। এখন গাড়ি চালানো বিপজ্জনক।মানুষ নরক যন্ত্রণায় ভোগে। প্রতি বছর রাস্তা সারাই হয়। কিন্তু বর্ষার আসার আগে দু’একদিনের বৃষ্টিতে রাস্তার হাল খুব খারাপ হয়।

Related Articles

Back to top button