23 Sep 2021, 2:17 AM (GMT)

Coronavirus Stats

33,563,421 Total Cases
446,080 Death Cases
32,815,731 Recovered Cases
খবরদেশরাজ্য

বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে মোদিকে ফোনে, চিঠিতে নালিশ মমতার

স্টাফ রিপোর্টারঃ রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ফোনে নালিশ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বুধবার হাওড়ার আমতায় বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে যাওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা হয় মুখ্যমন্ত্রীর। তখনই প্রধানমন্ত্রীর কাছে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, রাজ্যকে না জানিয়ে ডিভিসি জল ছাড়ার কারণেই রাজ্যে এই ধরনের বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে৷

একই সঙ্গে তিনি অভিযোগ করেছেন, ডিভিসি-র জলাধারগুলির পলিও নিয়মিত পরিষ্কার করা হচ্ছে না৷ ফলে, জলাধারগুলির জলধারণ ক্ষমতা কমে যাচ্ছে বলে প্রধানমন্ত্রীকে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ মু্খ্যমন্ত্রীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ফোনে কথা বলার বিষয়টি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে ট্যুইট করা হয়৷ সেই ট্যুইটে জানানো হয়েছে, বাঁধ থেকে জল ছাড়ার কারণে রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে দু’ জনের আলোচনা হয়েছে৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রের তরফে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে৷ প্লাবিত এলাকার মানুষকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী উদ্বিগ্ন বলেও ট্যুইটে জানানো হয়েছে৷ এছাড়াও এদিন রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বুধবার চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে দিয়ে এমন বেশ কিছু নদী বয়ে গিয়েছে যেগুলির অববাহিকা রয়েছে ঝাড়খণ্ড বা বিহারে৷ ফলে ওই রাজ্যগুলিকে বৃষ্টি হলে তার জল চলে আসছে পশ্চিমবঙ্গ দিয়ে বয়ে যাওয়া মূল নদীগুলিতে৷ উদাহরণ হিসেবে ঝাড়খণ্ডে প্রায় এক হাজার বর্গ কিলোমিটার জুড়ে ছড়িয়ে থাকা দামোদর এবং বরাকরের অববাহিকার কথা তুলে ধরেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ যার ফলে ঝাড়খণ্ডে মাঝারি বৃষ্টি হলেও এ রাজ্যের জলাধারগুলিতে বিপুল পরিমাণ জল জড়ো হয়৷ মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, ‘গত কয়েকদিন নিম্নচাপের জেরে পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খণ্ডে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে৷ মাইথন, পাঞ্চেত এবং তেনুঘাট জলাধার থেকে ২ লক্ষ কিউসেক জল ছাড়ায় পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া, হুগলি, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে৷

‘ মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, অতি বর্ষণ এবং বন্যায় রাজ্যে ১৬ জনের প্রাণহানি ছাড়াও লক্ষ লক্ষ মানুষ এবং কৃষক দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছেন৷ বাড়ি, ঘর, চাষের জমি, রাস্তাঘাট, সেতু, বিদ্যুতের খুঁটি সহ অন্যান্য পরিকাঠামোরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে৷ ডিভিসি-র দিকে আঙুল তুলে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতেও ম্যান মেড বন্যার অভিযোগ তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি লিখেছেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ নদীমাতৃক রাজ্য৷ ডিভিসি-র জলাধার থেকে বিপুল পরিমাণ জল ছাড়ায় অতীতেও বছরের পর বছর রাজ্যে ম্যান মেড বন্যা হয়েছে৷ ২০১৫ সালের পর ২১০৭, ২০১৯ এবং এ বছরও রাজ্যকে জটিল বন্যা পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়েছে৷ ‘ মুখ্যমন্ত্রী আরও অভিযোগ করেছেন, ২০১৫ সালেও এই সমস্যার কথা উল্লেখ করে ডিভিসি-র জলাধারগুলির জলধারণ ক্ষমতা বাড়াতে ড্রেজিংয়ের দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন তিনি৷

যাতে পশ্চিমবঙ্গকে বন্যার গ্রাস থেকে রক্ষা করা যায়৷ কিন্তু তার পরেও সমস্যার সমাধানে কোনও নজর দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

Related Articles

Back to top button