05 Aug 2021, 5:49 AM (GMT)

Coronavirus Stats

31,855,725 Total Cases
426,782 Death Cases
31,007,795 Recovered Cases
খবরদেশরাজ্য

প্রায় ৯১ কোটি টাকার চালানের মাধ্যমে ইনপুট ট্যাক্স ক্রেডিট অনুমতি আদায়ের হদিশ, গ্রেপ্তার ৩

সংবাদ সংস্থা ঃ সুনির্দিষ্ট গোয়ান্দা তথ্যের ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় পণ্য ও পরিষেবা কর (সিজিএসটি)-এর পশ্চিম দিল্লি কমিশনারেটের কর ফাঁকি দমন শাখার আধিকারিকরা বেআইনি ভাবে সুবিধা নিয়ে পণ্য সামগ্রী ছাড়াই প্রায় ৯১ কোটি টাকার চালানের মাধ্যমে ইনপুট ট্যাক্স ক্রেডিট অনুমতি আদায়ের একটি ভিত্তিহীন ঘটনার হদিশ পেয়েছেন।

ভিত্তিহীন ইনপুট ট্যাক্স ক্রেডিট দাবি করার পেছনে একাধিক ভুয়ো সংস্থার নেটওয়ার্ক জড়িত রয়েছে বলে জানা গেছে। ভুয়ো এই সংস্থাগুলি কর ফাঁকি দিয়ে অবৈধ ভাবে ইনপুট ট্যাক্স ক্রেডিটের সুবিধা গ্রহণ করেছে। কর ফাঁকি দমন শাখার আধিকারিকরা ভুয়ো সংস্থাগুলির যে নেটওয়ার্কের হদিশ পয়েছেন, তার মধ্যে মেসার্স গিরধার এন্টারপ্রাইস, মেসার্স অরুণ সেলস, মেসার্স অক্ষয় ট্রেডার্স, মেসার্স পদ্মাবতী এন্টারপ্রাইস সহ আরও ১৯টি সংস্থা জড়িত রয়েছে

ভুয়ো এই ২৩টি সংস্থা পণ্য ছাড়াই চালান তৈরি করতো, যাতে প্রকৃত জিএসটি মাশুল মেটানো ছাড়াই অবৈধভাবে করের সুবিধা নিতো। এধরণের ভুয়ো চালান তৈরির সঙ্গে প্রয়াত দীনেশ গুপ্তা, শুভম গুপ্তা, বিনোদ জৈন ও যোগেশ গোয়েল জড়িত ছিলেন বলে জানা গেছে। এই সংস্থাগুলি বিভিন্ন পণ্য সামগ্রীর ব্যবস্যায় যুক্ত ছিল। এমনকি, পণ্য ছাড়াই ৫৫১ কোটি টাকার চালান তৈরি করেছিল। কিন্তু এই চালানের বিনিময়ে তারা প্রকৃতপক্ষে কোন কর জমা করেনি।

পক্ষান্তরে সংস্থাগুলি কর জমা বাবদ প্রায় ৯১ কোটি টাকা রিটার্নের দাবি জানায়। অভিযুক্তরা স্বেচ্ছায় তাদের অভিযোগ স্বীকার করে বিবৃতি জমা দিয়েছে। ভুয়ো চালান তৈরির সঙ্গে যুক্ত শুভম গুপ্তা, বিনোদ জৈন ও যোগেশ গোয়েল সজ্ঞানে দুষ্কর্ম স্বীকার করে নিয়েছেন। এজন্য তাদেরকে ২০১৭-র সিজিএসটি আইনের ১৩২(১)(বি) এবং ১৩২(১)(সি) ধারার আওতায় অভিযুক্ত করা হয়েছে।

উল্লেখ করা যেতে পারে, সংশ্লিষ্ট আইনের যে ধারাগুলিতে এদের অভিযুক্ত করা হয়েছে তা জামিন অযোগ্য এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। সিজিএসটি আইনের ১৩২ ধারার আওতায় এদের শনিবার গ্রেফতার করা হয়েছে এবং মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ১৪ দিন বিচার বিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। পুরো ঘটনার তদন্ত চলছে।

Related Articles

Back to top button