23 Sep 2021, 3:48 AM (GMT)

Coronavirus Stats

33,586,892 Total Cases
446,279 Death Cases
32,832,371 Recovered Cases
খবরদেশ

কৃষক আন্দোলনের জেরে প্রতিকূল প্রভাব, কেন্দ্র সহ চার রাজ্যকে নোটিশ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের

সংবাদ সংস্থা : দীর্ঘ ন’মাস ধরে চলছে কৃষক আন্দোলন। আর তার জেরেই ছোট-মাঝারি কোম্পানি, পর্যটক, যাতায়াত ব্যবস্থা ব্যাহত হচ্ছে। এর সাথে আন্দোলন চত্বরে স্থানীয় বাসিন্দারাও সমস্যায় পড়ছে। এই সমস্ত প্রতিকূল প্রভাব নিয়ে কেন্দ্র সহ হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাব এবং দিল্লি সরকারকে নোটিশ পাঠালো জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। এছাড়াও চার রাজ্যের পুলিশ অধিকারীরা এই নিয়ে কি পদক্ষেপ নিচ্ছে সেই সম্বন্ধীয় এক রিপোর্টও চেয়েছে কমিশন।

কমিশনের রিপোর্টে বলা হয়েছে, কৃষক আন্দোলনের জেরে প্রায় ৯,০০০ ছোট, বড়ো, মাঝারি কোম্পানির ক্ষতি হচ্ছে। যাতায়াত ব্যবস্থায়ও এর প্রভাব পড়েছে। রোগীরাও ঠিক সময়ে হাসপাতালে পৌঁছতে পারছে না। বয়স্ক এবং প্রতিবন্ধীদেরও যাতায়াতে সমস্যা হচ্ছে। এছাড়াও, প্রধান রাস্তাগুলি বন্ধ থাকায় স্বল্প সময়ের গন্তব্যে পৌঁছতেও অনেক সময় লাগছে। আন্দোলন স্থলে ব্যারিকেড থাকায় স্থানীয়রাও বাইরে যেতে সমস্যায় পড়ছে। আন্দোলন স্থল ছোট হওয়ায় সঠিক করোনা বিধিও মানা হচ্ছে না বলে জানিয়েছে কমিশন।

কমিশনের মতে ‘কৃষক আন্দোলন’ও মানবাধিকারের আওতায় পড়ছে। এবং আন্দোলনের অধিকারও রয়েছে তাঁদের। কিন্তু তার জন্য এক নির্ধারিত জায়গা সুনিশ্চিত করা উচিত। যেখানে তাঁরা কোন বাঁধা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যেতে পারে। কমিশন আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে ইনস্টিটিউট অফ ইকোনমিক গ্রোথের কাছে কারখানাজাত দ্রব্য রপ্তানিতে অতিরিক্ত কত খরচ হচ্ছে তা সম্পর্কিত রিপোর্ট চেয়েছে। অপরদিকে করোনা বিধি নিয়েও গৃহ মন্ত্রালয়ের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, নতুন কৃষি কানুন বাতিলের দাবিতে এবং কৃষি উৎপাদনের ওপর নূন্যতম সমর্থন মূল্য সংক্রান্ত আইনের দাবিতে গত বছর ২৫ নভেম্বর থেকে দিল্লি সীমান্তে বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলনে বসেছে কৃষক। সম্প্রতি সেই আন্দোলনকে আরো বড়ো করতে চাইছে কৃষক সংগঠনগুলি।

Related Articles

Back to top button