19 Jun 2021, 7:08 AM (GMT)

Coronavirus Stats

29,853,870 Total Cases
385,815 Death Cases
28,725,030 Recovered Cases
রাজ্য

এত ভয় ভাল না বাবুমশাই, বিজেপির নেতামন্ত্রীদের কড়া দাওয়াই তৃণমূলের সায়নীর

স্টাফ রিপোর্টারঃ শুক্রবারই তৃণমূলের পদপ্রার্থী হিসেবে সায়নী ঘোষের নাম ঘোষণা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । আসানসোল দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে ঘাসফুল শিবিরের হয়ে ভোটে লড়ছেন তিনি। আর তারপর থেকেই ‘শিবলিঙ্গে কন্ডোম’ প্রসঙ্গে তুলে অভিনেত্রীকে আক্রমণ করা শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়। গেরুয়া শিবির সমর্থকদের একাংশ প্রশ্ন তুলেছেন,

“শিবলিঙ্গে কন্ডোম পরানোর পুরস্কার হিসেবেই কি তৃণমূলের হয়ে টিকিট পেলেন সায়নী?” ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনিই হোক কিংবা শিবলিঙ্গে কন্ডোম প্রসঙ্গই হোক, নেটদুনিয়ায় একাধিকবার বিজেপি সমর্থকদের ট্রোলিংয়ের শিকার হয়েছেন সায়নী। তখন অবশ্য তিনি বামপন্থী মনোভাবাপন্ন অভিনেত্রী হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। তবে বিজেপি আক্রমণের শিকার হয়ে মমতার সমর্থন পেয়েছিলেন তিনি, আর তার ঋণ-স্বরূপই বর্তমানে তৃণমূল পরিবারের একনিষ্ঠ সদস্য সায়নী। সবুজ পতাকা হাতে তুলেই ভিন্ন ইস্যুতে বিজেপিকে বিঁধেছেন।

এবার পদপ্রার্থী হওয়ার পর ট্রোলের মুখে পড়েও তার অন্যথা হল না। কষিয়ে জবাব দিলেন গেরুয়া শিবিরকে।নেটদুনিয়ায় রণংদেহী সায়নী ঘোষ কোনওরকম রেয়াত না করেই বিজেপির নেতা-মন্ত্রী তথা সমর্থকদের একহাত নিলেন। খোলা চিঠিতেই সবক শিখিয়ে বললেন, “নারীদের সম্মান করতে শিখুন।” চিঠির বিষয়বস্তু ”অন্যকে কষ্ট দিয়ে নিজে শান্তিতে থাকার চেষ্টা।” সংশ্লিষ্ট দীর্ঘায়িত পোস্টে সায়নী লিখেছেন, “Dear Bjp, আপনাদের এই পার্সোনাল অ্যাটাক বা স্মিয়ার ক্যাম্পেইন, ট্রোল বা মিম, আমাদের চলচ্চিত্র জগতের মানুষের কাছে নতুন নয়। চিরাচরিত এবং বাধাগত ফর্মুলা নিয়ে মানুষের মধ্যে ভ্রান্তি ছড়ানো,

তাঁদের মনে ব্যক্তি সম্পর্কে ভুল ধারনা তৈরি করা, মেরুকরণ আপনাদের বাধাগত ছক। তবে এইটুকু মনে রাখতে হবে যে আমরা বাংলার অনেক পুরনো সহচর। বাংলার মানুষের ভালোবাসা আমাদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। বোঝাই যাচ্ছে আপনারা একটু অস্বস্তিতে পড়েছেন। আমাদের বিরুদ্ধাচারণ এটা আরও পরিষ্কার করে দিচ্ছে মানুষের কাছে। আর মেয়েদের সম্মান করা আপনাদের ধাতে নেই। আর তা থাকবেই বা কেন!! আপনাদের দলের নেতাই যখন আদ্যাশক্তি, মহামায়া, দেবী দুর্গার বংশপরিচয় নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। আগে নিজের দলের মহিলাদের নিঃশর্তভাবে সম্মান করতে শিখুন।”

এখানেই থেমে থাকেননি অভিনেত্রী। ভোটের মুখে বিজেপিকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দেগে এও মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, “বেশি কথা বাড়ালে আপনারাই অস্বস্তিতে পড়বেন। এছাড়া বাংলার মানুষের মনোভাব, মুখের ভাষা বিষিয়ে দিতে আপনাদের জুড়ি মেলা ভার। ধার করতে আপনারা ওস্তাদ। তা আমাদের দলের থেকে নেতা হোক বা পরিবর্তনের স্লোগান।

” সবশেষে GrowUpBjp হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে লিখেছেন, “এত ভয় ভাল না বাবুমশাই।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button